নিউ জিল্যান্ডে ‘তিমির সঙ্গে ধাক্কা লেগে’ নৌকা উল্টে ৫ মৃত্যু

কাইকুরা শহরের কাছে গুজ বে-তে উল্টে যাওয়ার সময় নৌকাটিতে ১১ আরোহী ছিলেন, যাদের বেশিরভাগই পাখি দেখা দলের সদস্য।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Sept 2022, 07:04 AM
Updated : 11 Sept 2022, 07:04 AM

নিউ জিল্যান্ডে পর্যটকদের পাখি দেখাতে নিয়ে যাওয়া একটি নৌকা উল্টে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

একটি তিমির সঙ্গে ধাক্কা লাগার পর নৌকাটি উল্টে যায় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কাইকুরা শহরের কাছে গুজ বে-তে শনিবার উল্টে যাওয়ার সময় নৌকাটিতে ১১ আরোহী ছিলেন, যাদের বেশিরভাগই পাখি দেখতে যাওয়া দলের সদস্য বলে জানিয়েছে বিবিসি।

দুর্ঘটনার কারণ সম্বন্ধে অনুমাননির্ভর কিছু বলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে পুলিশ, তিমির সঙ্গে ধাক্কা লাগার বিষয়টিও নিশ্চিত করেনি তারা।

তবে কাইকুরার মেয়র ক্রেইগ ম্যাকলে সাংবাদিকদের জানান, নৌকাটি ভেসে থাকা একটি তিমিকে ধাক্কা দিয়েছিল বলে ধারণা করছেন তিনি।

“সে সময় খাড়ির পরিবেশ ছিল চমৎকার। কর্মকর্তাদের অনুমান, তিমিটি নৌযানটির নিচে চলে এসেছিল, এ কারণেই সেটি উল্টে যায়,” বলেছেন তিনি।

নৌকাটি যদি কাঠের গুঁড়ির মতো কিছু বা অন্য কোনো প্রতিবন্ধকে আঘাত হানতো, তাহলে ২৮ ফুট দীর্ঘ ওই নৌকায় বড়সড় গর্ত হতো, কিন্তু এক্ষেত্রে তেমন কিছু দেখা যায়নি, ধারণার সপক্ষে এমন যুক্তিই দিয়েছেন ম্যাকলে।

পুলিশ কর্মকর্তা সার্জেন্ট ম্যাট বয়েস তিমির সঙ্গে ধাক্কা লেগে নৌকা উল্টে যাওয়ার ধারণা নিয়ে কিছু বলতে রাজি না হলেও এই ঘটনা যে ‘নজিরবিহীন’ তা স্বীকার করে নিয়েছেন।

তিনি জানান, নৌকা উল্টে যাওয়ার পর ক্যাপ্টেনসহ জীবিত উদ্ধার করা ব্যক্তিদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, পরে সেখান থেকে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। এদের মধ্যে একজন সামান্য আঘাত পেয়েছিলেন।

নৌকাটিতে যে যাত্রীরা ছিলেন, তারা একটি পাখি দেখা দলের সদস্য ছিলেন। এ দলটি নিউ জিল্যান্ডের বিভিন্ন অংশ থেকে সদস্যদের সেখানে জড়ো করেছিল বলে মনে করা হচ্ছে।

ভেনিসা চ্যাপম্যান নামে এক নারী স্থানীয় গণমাধ্যম স্টাফকে জানান, উদ্ধার তৎপরতায় তিনি সহায়তা করেছিলেন। তিনি যখন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন তখন উল্টানো নৌকায় বসে থাকা এক ব্যক্তিকে তাদের লক্ষ্য করে হাত নাড়াতেও দেখেছিলেন।

উদ্ধার অভিযানে তিনটি হেলিকপ্টার অংশ নেয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

সামুদ্রিক প্রাণবৈচিত্র্য দেখতে আগ্রহীদের কাছে খুবই জনপ্রিয় কাইকুরায় স্থানীয় অনেক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানই তিমি ও ডলফিন দেখাতে নৌকা ও হেলিকপ্টার ভ্রমণের সুযোগ করে দেয়।

নিউ ইয়র্কভিত্তিক একটি বার্তা সংস্থাকে মেয়র ম্যাকলে বলেন, এভাবে নৌকা উল্টে যাওয়ার ঘটনা এই অঞ্চলে শোনা যায়নি। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে অঞ্চলটিতে তিমির সংখ্যার কারণে তাদের সঙ্গে নৌযানের ধাক্কা লাগা নিয়ে দুশ্চিন্তা বাড়ছে।

২০১৫ সালে কানাডায় তিমি দেখতে গিয়ে ঢেউয়ের তোড়ে নৌকা উল্টে ৫ ব্রিটিশ পর্যটকের মৃত্যু হয়েছিল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক