মন্টিনিগ্রোতে গোলাগুলিতে বন্দুকধারীসহ নিহত ১১

এ ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে ৩ দিনের শোক ঘোষণা করেছেন মন্টিনিগ্রোর প্রধানমন্ত্রী দ্রিতান আবাজোভিচ।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 August 2022, 06:49 AM
Updated : 13 August 2022, 06:49 AM

ইউরোপের বলকান অঞ্চলের দেশ মন্টিনিগ্রোতে গুলি করে দুই শিশুসহ ১০ জনকে হত্যার পর বন্দুকধারী নিজেও এক বেসামরিক নাগরিকের গুলিতে নিহত হয়েছে, জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা।

শুক্রবার সেতিনিয়ে শহরে হওয়া এই ঘটনায় আরও ছয়জন আহত হয়েছে, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

মন্টিনিগ্রো পুলিশের পরিচালক জোরান ব্রিদিয়ানিন জানান, শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ৩৪ বছর বয়সী এক ব্যক্তি একটি শিকারের রাইফেল দিয়ে ৮ ও ১১ বছর বয়সী দুই ভাইবোনকে গুলি করে হত্যা ও তাদের মা’কে আহত করেন। পরে বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই নারীরও মৃত্যু হয়।

“এ পরিবারটি বন্দুকধারীর বাড়িতে ভাড়া থাকতেন,” বলেছেন ব্রিদিয়ানিন।

বন্দুকধারী কেন তাদের হত্যা করেছে তা পরিষ্কার হওয়া যায়নি। পরে বাড়ি থেকে বের হয়ে বন্দুকধারী আরও সাত জনকে গুলি করে হত্যা করে। পুলিশের সঙ্গেও তার গোলাগুলি হয়, তাতে এক পুলিশ সদস্য আহত হয়।

বন্দুকধারীর পুরো নাম না বললেও নামের আদ্যক্ষর ‘ভিবি’ বলে জানিয়েছেন ব্রিদিয়ানিন।

রাষ্ট্রীয় কৌসুলি আন্দ্রিয়ানা নাস্তিচ স্থানীয় ভিয়েস্তি টেলিভিশনকে বলেছেন, “আমরা ঘটনাস্থলে এসে দুই শিশুসহ ৯ জনের মৃতদেহ দেখি, হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরও ‍দুইজনের মৃত্যু হয়। আমি কেবল বলতে পারি, বন্দুকধারী এক বেসামরিক নাগরিকের গুলিতে মারা পড়েছেন।”

প্রথম দিকে স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বন্দুকধারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয় বলে জানানো হয়েছিল।

এই ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই তিন দিনের শোক ঘোষণা করেছেন মন্টিনিগ্রোর প্রধানমন্ত্রী দ্রিতান আবাজোভিচ।

“সেতিনিয়ের বেদনাদায়ক ঘটনার খবরে আমি খুবই মর্মাহত। হতাহতদের পরিবার এবং যারা তাদের প্রিয়জনদের হারিয়েছেন তাদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি,” টু্ইটারে লিখেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট মিলো জুকানোভিচ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক