মৃত্যুদণ্ড কার্যকরকে ‘ন্যায়বিচার’ বলল মিয়ানমার জান্তা

মিয়ানমারের জান্তার মুখপাত্র বলছেন, আইনের আওতায় দণ্ড কার্যকর হয়েছে এবং সাজাপ্রাপ্তদের আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল।

রয়টার্স
Published : 26 July 2022, 12:44 PM
Updated : 26 July 2022, 12:44 PM

চার গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকর্মীর মৃত্যুদণ্ডকে আইনসম্মত অ্যাখ্যা দিয়ে মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন সামরিক জান্তা বলেছে, জনগণের জন্য ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় এ মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

মঙ্গলবার জান্তার মুখপাত্র জ মিন ‍তুন এসব বলেছেন। তিনি বলেন, ব্যক্তিগত উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার জন্য এসব মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়নি।

আইনের আওতায় দণ্ড কার্যকর হয়েছে এবং সাজাপ্রাপ্তদের আত্মরক্ষার সুযোগ দেওয়া হয়েছিল বলে জানান তুন।

মিয়ানমারে কয়েক দশকের মধ্যে এবারই প্রথম মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হল।

এ পদক্ষেপের যে ব্যাপক সমালোচনা হবে মিয়ানমারের সামরিক সরকার তা জানত বলেও মন্তব্য করেছেন মুখপাত্র জ মিন তুন।

চার আন্দোলনকর্মীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর এরইমধ্যে বিশ্বজুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও জাতিসংঘের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জান্তার বিরুদ্ধে নিষ্ঠুরতার অভিযোগ করেছে।

মিয়ানমারে অভ্যুত্থানের পর থেকে সামরিক বাহিনী পরিচালিত আদালতের গোপন বিচারে যে শতাধিক ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে, তার মধ্যে এ চারজন ছিলেন।

এই ধারাবাহিকতায় জান্তা এখন বাকিদের মৃত্যুদণ্ডও কার্যকর করবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক