মাস্ককে ঠেকাতে ‘বিষের বড়ি’ গিলছে টুইটার

স্বল্প মেয়াদে ‘শেয়ারহোল্ডার রাইটস’ নামে শেয়ার কেনা-বেচার একটি বিশেষ নিয়ম চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাইক্রো ব্লগিং সেবা কোম্পানিটি।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 April 2022, 06:47 PM
Updated : 16 April 2022, 11:14 AM

সিএনবিসি জানিয়েছে, কেউ যদি পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদন ছাড়াই টুইটারের ১৫ শতাংশ কিংবা তার বেশি সাধারণ শেয়ারের মালিক হয়ে যান, তাহলে অন্য অংশীদাররা ছাড় দেওয়া মূল্যে বাড়তি শেয়ার কেনার সুযোগ পাবেন।

২০২৩ সালের ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত এই নিয়ম কার্যকর থাকবে বলে জানিয়েছে টুইটার।   

রয়টার্স লিখেছে, সম্ভাব্য অধিগ্রহণকারীর প্রস্তাব ঠেকানোর এমন কৌশল ‘পয়জন পিল’ হিসেবে পরিচিত।

টুইটারের পরিচালনা পর্ষদকে দেওয়া একটি চিঠিতে গত বুধবার ইলন মাস্ক কোম্পানিটি কিনে নেওয়ার প্রস্তাব দেন। তারপর থেকেই নানামুখী আলোচনা চলছে।

ভ্যাংকুভারে অনুষ্ঠিত ‘টেড২০২২’ সম্মেলনে বৃহস্পতিবার ইলন মাস্ক টুইটারের পরিচালনা পর্ষদকে এড়িয়ে সরাসরি এর অংশীদারদের কাছ থেকে শেয়ার কেনার ইঙ্গিত দেন।

সম্প্রতি টুইটারকে ঘিরে একর পর এক নাটকীয়তার জন্ম দিয়েছেন বিশ্বের শীর্ষ ধনী ইলন মাস্ক। সর্বশেষ চার হাজার ৩০০ কোটি ডলারে টুইটার কিনে নেওয়ার প্রস্তাব দিয়ে প্রযুক্তি বাজারে আলোড়ন তোলেন।

কিন্তু টুইটার আদৌ বদলদাবা করতে পারবেন কি না, সে প্রশ্নে মাস্ক নিজেই সন্দিহান।তিনি বলেন, “আমি নিশ্চিত নই যে সত্যিই এটা কিনতে পারব কি না।”

মাস্ক জানান, টুইটারের সকল বিক্রয়যোগ্য শেয়ার কিনে নেওয়ার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান হলে বিকল্প হিসেবে ‘প্ল্যান বি’ প্রস্তুত রেখেছেন। তবে সেই পরিকল্পনার বিস্তারিত জানাননি তিনি।

বিবিসি জানিয়েছে, মাস্কের প্রস্তাব কোম্পানির ওপর বাড়তি কোনো চাপ সৃষ্টি করছে না বলে টুইটার কর্মীদের আশ্বস্ত করেছেন এর সিইও পারাগ আগরাওয়াল।

ইতোমধ্যে টুইটারের ৯ দশমিক ২ শতাংশ শেয়ার আছে মাস্কের হাতে, স্বল্প সময়ে জন্য কোম্পানির বৃহত্তম অংশীদারও ছিলেন তিনি।

মাস্ককে টুইটারের শীর্ষ অংশীদারের অবস্থান থেকে সরিয়েছে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ভ্যানগার্ড গ্রুপ। ৮ এপ্রিলে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, টুইটারের ১০.৩ শতাংশ শেয়ার কিনে তারাই এখন বৃহত্তম অংশীদার।

আরও পড়ুন:

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক