আত্নহত্যা প্রবণতা রোধে মাঠে নেমেছে রেডিট

আত্মহত্যা প্রবণতা রোধে ‘ক্রাইসিস টেক্সট লাইনের সঙ্গে জোট বেঁধেছে মাইক্রোব্লগিং সাইট রেডিট। ‘ক্রাইসিস টেক্সট লাইন’ মূলত জরুরি অবস্থায় টেক্সট বার্তাভিত্তিক সেবা দিয়ে থাকে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 March 2020, 02:16 PM
Updated : 5 March 2020, 02:16 PM

বুধবার নিজেদের জোট বাঁধার খবরটি সম্পর্কে নিশ্চিত করেছে মাইক্রোব্লগিং সাইটটি। এখন থেকে রেডিট ব্যবহারকারীরাই অন্যান্য ব্যবহারকারীর বিষয়ে খেয়াল রাখতে পারবেন। পাশাপাশি, কারো মধ্যে এমন প্রবণতা দেখলে রিপোর্ট করতে পারবেন। ওই রিপোর্টের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেবে মাইক্রোব্লগিং সাইটটি। -- খবর প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট সিনেটের।

যার নামে রিপোর্ট করা হবে, ওই ব্যবহারকারীর রেডিট ইনবক্সে পৌঁছে যাবে নানাবিধ কার্যকরী অনলাইন সেবার উৎস। রেডিট ইনবক্সের মাধ্যমে ‘ক্রাইসিস টেক্সট লাইন’ সেবা কীভাবে ব্যবহার করা যাবে, সে সম্পর্কিত নির্দেশনাও দেওয়া হবে।

‘ফ্রন্ট পেইজ অফ দ্য ইন্টারনেট’ বা ‘ইন্টারনেটের প্রথম পাতা’ খ্যাত সামাজিক মাধ্যমটির রয়েছে নানা বিষয়ের উপর নানা ধরনের গ্রুপ, আলোচনা প্যানেল ইত্যাদি। ওই গ্রুপ বা আলোচনা প্যানেলগুলোতে একেবারে ঘরোয়া রান্না থেকে শুরু করে রাজনীতি, মানসিক স্বাস্থ্য, ক্যারিয়ার সব কিছু নিয়েই আলোচনা করে থাকেন রেডিট ব্যবহারকারীরা। নিজ পরিচয় গোপন রেখেই কাজগুলো করতে পারেন তারা। অনেকেই এভাবে পরিচয় গোপন রেখে নিজের ক্ষতি করার ইচ্ছার কথা প্ল্যাটফর্মটিতে জানান বলে উল্লেখ করেছে সিনেট।

ফেইসবুক ও টুইটারেরও প্রায় একই ধরনের সেবা রয়েছে। ওই সেবার মাধ্যমে নানাবিধ ‘ক্রাইসিস সাপোর্ট বা সহায়তা লাইনের সঙ্গে যোগাযোগ করার সুযোগ পান ফেইসবুক ও টুইটার ব্যবহারকারী। আর ফটো শেয়ারিং সাইট ইন্সটাগ্রাম-তো আত্নহননে উৎসাহিত করে এমন পোস্ট ব্যবহারকারীদের দৃষ্টিসীমার বাইরে রাখতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বেশ অনেকদিন ধরেই।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক