তৈরি ব্লকচেইন সেবা আনছে আইবিএম

হাইপারলেজার প্রজেক্ট থেকে ব্লকচেইন কোড ব্যবহার করে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের ক্লাউডে অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করতে পারবে এমন এক সেবা চালু করেছে কম্পিউটার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান আইবিএম।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 March 2017, 09:02 AM
Updated : 20 March 2017, 09:02 AM

ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েন থেকে ব্লকচেইন ধারণার উৎপত্তি। এটি একটি বৈদ্যুতিকলেনদেন প্রক্রিয়া হিসেবে কাজ করে। সেইসঙ্গে এই ব্যবস্থায় সব পক্ষকে একটি নিরাপদ নেটওয়ার্কেলেনদেনবিষয়ক তথ্য দেখার সুযোগ দেয়। এটি একটি ইন্টারনেটভিত্তিক লেনদেন প্রক্রিয়া ও নিষ্পত্তিব্যবস্থা। এটি 'পিয়ার টু পিয়ার' পদ্ধতিতে কাজ করে থাকে। এক্ষেত্রে একটি ব্লকচেইন ডেটাবেইসেসকল লেনদেন সংরক্ষণ করা হয়। এটি একটি 'গোল্ডেন রেকর্ড' তৈরি করে, যা যে কোনো প্রদত্ততথ্যকে একটি নিরাপদ নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সব পক্ষের জন্য প্রতিলিপি তৈরি করে। এর আরেকটিসুবিধা হচ্ছে এক্ষেত্রে তৃতীয় পক্ষের যাচাইয়ের প্রয়োজন পরে না।

সোমবার মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি জানায়, হাইপারলেজার ফেব্রিক কোড ব্যবহার করেএন্টারপ্রাইজ-গ্রেড প্রযুক্তি নির্মাণে নির্মাতাদের জন্য আনা প্রথম সেবা হচ্ছে আইবিএমব্লকচেইন। এই ফ্রেব্রিক ব্লকচেইন প্রতি সেকেন্ডে এক হাজারেরও বেশি লেনদেন সম্পন্ন করতেপারে। সেই সঙ্গে বড় প্রতিষ্ঠানগুলোর অ্যাপ্লিকেশন তৈরিতে দরকারি ফিচারগুলোও এতে রয়েছে।নিজেদের ব্লকচেইন সেবাগুলো ব্যবহার করে একটি ডিজিটাল শনাক্তকারী নেটওয়ার্ক বানাতে সিকিউরকিটেকনোলজি ও কানাডীয় ব্যাংকগুলোর একটি দলের সঙ্গে কাজ করার কথাও জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

চলতি বছরের শেষে এই নেটওয়ার্ক উন্মুক্ত করার কথা রয়েছে। নতুন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট,গাড়ি চালানোর লাইসেন্স বা অন্য সেবায় গ্রাহকরা যাতে সহজেই তাদের পরিচয় প্রমাণ করে অ্যাকসেসকরতে পারেন সে লক্ষ্যেই এই নেটওয়ার্ক বানানো হয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স। 

এটি তৈরিতে আইবিএম এর সঙ্গে কাজ করা কানাডার ব্যাংকগুলোর মধ্যে ব্যাংক অফমনট্রিয়ল, রয়াল ব্যাংক অফ কানাডা, ব্যাংক অফ নোভা স্কশিয়া, কানাডিয়ান ইম্পেরিয়াল ব্যাংকঅফ কমার্স আর টরোন্টো-ডমিনিয়ন ব্যাংক রয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যাংকগুলোসহ অন্যান্য বড় প্রতিষ্ঠান প্রযুক্তি খাতে তাদেরবিনিয়োগ বাড়াচ্ছে। এ ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানগুলোর আশা এটি আন্তর্জাতিক লেনদেনের মতো তাদেরবিভিন্ন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা আরও সহজ ও কম খরচে করে দেবে। ব্লকচেইন প্রযুক্তিতে বিনিয়োগকরছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আর পেশাদার সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোও।

ব্লকচেইনে সবচেয়ে এগিয়ে চলা বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে আইবিএম একটি,ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠানটির প্রযুক্তি ব্যবহার করে অ্যাপ্লিকেশিন বানাচ্ছে এমন গ্রাহকদেরমধ্যে নর্দার্ন ট্রাস্ট কর্পোরেশন, ওয়াল-মার্ট স্টোরস আর ডিপজিটরি ট্রাস্ট অ্যান্ডক্লিয়ারিং কর্পোরেশন উল্লেখযোগ্য।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক