ব্লকচেইন কেন্দ্র হওয়ার পথে দুবাই

লেনদেন ব্যবস্থাপনায় ব্লকচেইন প্রযুক্তি ব্যবহার নিয়ে একটি প্রকল্প চালু করতে কম্পিউটার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান আইবিএম-এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিশ্বের অন্যতম বড় বাণিজ্যিক কেন্দ্র দুবাই, মঙ্গলবার এ তথ্য জানায় মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Feb 2017, 12:54 PM
Updated : 7 Feb 2017, 12:54 PM

এই প্রকল্পে দুবাইয়ের কাস্টমসে মালামালের চালানের অবস্থা, বাণিজ্য সংস্থাও ব্যবসায় প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্পর্কে প্রতি মূহুর্তের তথ্য দেওয়াহবে বলে জানিয়েছে আইবিএম।

২০১৬ সালের প্রথমার্ধে ৬৪৭০০ কোটি দিরহাম মূল্যের বাণিজ্য (তেল ছাড়া) সম্পন্নকরেছে, অংকটা ১৭৬০০ ডলারের সমতুল্য বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

আইবিএম জানিয়েছে, টেলিযোগাযোগ সেবাদাতা সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক প্রতিষ্ঠানদু, দুবাইয়ের সবচেয়ে বড় ব্যাংক এমিরেটস এনবিডি, স্প্যানিশ আর্থিক প্রতিষ্ঠান বাঙ্কোস্যানট্যানডার, দুবাইভিত্তিক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান অ্যারামেক্স ও নাম প্রকাশ না করাএকটি এয়ারলাইন-এর সঙ্গে এই প্রকল্পে কাজ করছে তারা।

ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েন থেকে ব্লকচেইন ধারণার উৎপত্তি। এটি একটি বৈদ্যুতিকলেনদেন প্রক্রিয়া হিসেবে কাজ করে। সেইসঙ্গে এই ব্যবস্থায় সব পক্ষকে একটি নিরাপদ নেটওয়ার্কেলেনদেনবিষয়ক তথ্য দেখার সুযোগ দেয়। এ ক্ষেত্রে কোনো তৃতীয় পক্ষের যাচাইয়ের দরকার হয়না।

এই ব্যবস্থার প্রবক্তারা বিশ্বাস করেন, এর মাধ্যমে লেনদেন আরও দ্রুত ও নিরাপদহতে পারে, এর কার্যক্রম হতে পারে আরও বিস্তৃত পরিসরে।

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে দুবাই সরকার একটি পরিকল্পনা প্রকাশ করে, যাতে দুবাইকেএকটি ব্লকচেইন কেন্দ্রে পরিণত করার কথা বলা হয়। ওই পরিকল্পনার প্রেক্ষিতেই এই চুক্তিহতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

আইবিএম জানিয়েছে, এই প্রকল্পে অংশ নেওয়া ব্যাংক দুটি ব্যবসা-বাণিজ্যের আর্থিকলেনদেন সম্পন্ন করতে ব্লকচেইন প্রযুক্তি ব্যবহার করবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক