স্যাটেলাইট ইন্টারনেট: হাজির স্পেসএক্স-অ্যামাজনের নতুন ইউরোপীয় প্রতিদ্বন্দ্বী

স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবার বাজারে স্পেসএক্সের ‘স্টারলিংক’ এবং অ্যামাজনের ‘কুইপার’-এর সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে দুই কোম্পানির সমন্বিত সেবা।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2022, 12:51 PM
Updated : 27 July 2022, 12:51 PM

এক হচ্ছে ইউরোপের দুই স্যাটেলাইট কোম্পানি ‘ওয়ানওয়েব’ এবং ‘ইউটেলস্যাট’। দুই কোম্পানি বলছে, পৃথিবীর কক্ষপথে থাকা নিজস্ব স্যাটেলাইটগুলোকে একই কাঠামোতে সংযুক্ত করে আরও দ্রুত গতির ইন্টারনেট সেবা দেবে তারা।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ জানিয়েছে, ৩৪০ কোটি ডলারের নতুন চুক্তির ফলে ইউটেলস্যাটের অধীনে আলাদা ব্র্যান্ড হিসেবে ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাবে ওয়ানওয়েব। স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবার বাজারে স্পেসএক্সের ‘স্টারলিংক’ এবং অ্যামাজনের ‘কুইপার’-এর সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে দুই কোম্পানির সমন্বিত সেবা।

পৃথিবীর চারপাশে ৩৬টি স্যাটেলাইট আছে ফ্রান্সভিত্তিক ইউটেলস্যাটের; টেলিভিশন ও ইন্টারনেট সংযোগ সেবা দেয় কোম্পানিটি। অন্যদিকে, ২০১৯ সালে নিজেদের প্রথম ‘ইন্টারনেট-ব্রডকাস্টিং স্যাটেলাইট’ মহাকাশে পাঠিয়েছিল ওয়ানওয়েব।

মহাকাশে ৬৪৮টি স্যাটেলাইট পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে ওয়ানওয়েব; এর মধ্যে মহাকাশে পৌঁছেছে ৪২৮টি। তবে, এখন পর্যন্ত একাধিক দেশের সরকারি পর্যায়ে এবং মোবাইল সংযোগ সেবাদাতা এটিঅ্যান্ডটি’র মতো কোম্পানিগুলোর সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তির ওপরই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে ওয়ানওয়েব।

স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবার বাজারে এখন সবচেয়ে প্রভাবশালী উপস্থিতি স্পেসএক্স এবং অ্যামাজনের। এর মধ্যে ‘প্রোজেক্ট কুইপার’-এর অধীনে তিন হাজার ২৩৬টি ইন্টারনেট স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠাতে সামনের পাঁচ বছরে জন্য ৮৩টি স্পেসফ্লাইট বুক করে রেখেছে অ্যামাজন।

অ্যামাজনের তুলনায় বিভিন্ন দিক থেকে এগিয়ে আছে স্পেসএক্সের স্টারলিংক সেবা। এরই মধ্যে মহাকাশে কয়েক হাজার স্যাটেলাইট পাঠিয়েছে বিশ্বের শীর্ষ ধনী ইলন মাস্কের কোম্পানিটি। স্টারলিংক সেবার বর্তমান গ্রাহকসংখ্যা আড়াই লাখের বেশি; ইন্টারনেট সেবা দিচ্ছে কয়েক ডজন দেশে।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানগুলোর তুলনায় স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবার বাজারে এরই মধ্যে শক্ত অবস্থান গড়ে নিয়েছে স্টারলিংক।

এমন দৃশ্যপটে নতুন চুক্তির প্রভাব নিয়ে এক সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে ইউটেলস্যাটের চেয়ারম্যান ডমিনিক ডাহিনিন বলেন, “আমাদের দুই ব্যবসাকে একিভূত করার ফলে সংযোগ খাতে ব্যবসা বৃদ্ধির সুযোগ সৃষ্টি করবে এবং আমাদের ক্রেতাদের বিভিন্ন খাতে তাদের প্রয়োজন মতো সেবা দিতে পারবে।”

“দুই কোম্পানির সমন্বয় ওয়ানওয়েবের স্যাটেলাইট বহরের বাণিজ্যিকরণের গতি বাড়াবে, পাশাপাশি ইউটেলস্যাটের ব্যবসায়িক প্রোফাইলের আকর্ষণও বাড়বে,”-- যোগ করেন তিনি।

ভার্জ জানিয়েছে, শুরুতে উত্তর মেরুতে ইন্টারনেট সেবা দিতে সরাসরি স্পেসএক্সের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছে ওয়ানওয়েব। কোম্পানিটি ২০২১ সালের মার্চে মাসে ৩৬টি স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠিয়ে জুলাই মাসে ঘোষণা দিয়েছিল, উত্তরমেরুর কাঙ্খিত অঞ্চলে ইন্টারনেট সেবা চালু করতে সক্ষম হয়েছে তারা।

এ বছরের জুন মাসের মধ্যে বিশ্বব্যাপী নিজস্ব ইন্টারনেট সেবা চালু করার পরিকল্পনা করেছিল ওয়ানওয়েব। তবে, ইউক্রেইনে রাশিয়ার সামরিক হামলার জেরে পিছিয়ে গেছে স্যাটেলাইটগুলো মহাকাশে পাঠানোর দিনক্ষণ।

ভার্জ জানিয়েছে, নিজস্ব দাবিদাওয়া মেটাতে ওয়ানওয়েব স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ আটকে রেখেছিল রাশিয়া। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রাশিয়ার রকেট ছেড়ে স্পেসেএক্সের মাধ্যমে নিজস্ব স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওয়ানওয়েব।

সাইটটি আরও জানিয়েছে, একিভূতকরণ চুক্তির ফলে ইউটেলস্যাটের ৫০ শতাংশ শেয়ারের মালিক হবেন ওয়ানওয়েবের শেয়ারমালিকরা। ২০২৩ সালের প্রথম অংশেই সম্পন্ন হতে পারে চুক্তির সব কাজ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক