বার্সেলোনার লাভ প্রায় ১০ কোটি ইউরো

২০২২-২৩ মৌসুমে আরও ২৭ কোটি ১০ লাখ ইউরো লাভের আশা করছে কাতালান ক্লাবটি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Sept 2022, 10:03 AM
Updated : 20 Sept 2022, 10:03 AM

কোভিড মহামারী শুরুর পর প্রথমবারের মতো লাভের মুখ দেখেছে বার্সেলোনা। ২০২১-২২ মৌসুমে ৯ কোটি ৮০ লাখ ইউরো লাভ করেছে কাতালান ক্লাবটি। এই মৌসুমে লাভের অঙ্কটা আরও বেশি হওয়ার আশা করছে তারা। সেটি হতে পারে প্রায় ২৭ কোটি ১০ লাখ ইউরো। 

ক্লাবের ওয়েবসাইটে সোমবার বার্সেলোনা জানায়, গত অর্থবছরে তাদের রাজস্ব আয় হয়েছে মোট ১০১ কোটি ৭০ লাখ ইউরো। এবারের অর্থবছরে সেটি হতে বেড়ে পারে ১২৫ কোটি ৫০ লাখ ইউরো।  

গত মৌসুমে বার্সেলোনার আর্থিক হিসাব পরিপুষ্ট হয় নিজেদের ঘরোয়া টিভিস্বত্বের ১০ শতাংশ মার্কিন বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান সিক্সথ স্ট্রিটের কাছে বিক্রি করার পর। ২০ কোটি ইউরোর এই চুক্তি হয় গত ৩০ জুন, যেদিন ছিল আর্থিক বছরের শেষ দিন। 

গত জুলাইয়ে সিক্সথ স্ট্রিটের কাছে ৩০ কোটির বেশি ইউরোয় নিজেদের ঘরোয়া টিভিস্বত্বের আরও ১৫ শতাংশ বিক্রি করে তারা। এরপর বার্সা স্টুডিওর ২৪.৫ শতাংশ করে দুটি অংশ ২০ কোটি ইউরোয় বিক্রি করা হয়। এসব থেকে প্রাপ্ত অর্থ ২০২২-২৩ মৌসুমের আর্থিক হিসাবে ভূমিকা রাখবে। 

বার্সেলোনার এসব আর্থিক হিসাব ২০২০-২১ মৌসুম থেকে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রমাণ। সেবার ৪০ কোটি ইউরো লোকসান হয়েছিল তাদের। লা লিগার বেঁধে দেওয়া খরচের সীমা নিয়ম ছাড়িয়ে যাওয়ায় সেবার লিওনেল মেসির সঙ্গে নতুন চুক্তি করতে পারেনি তারা। কাম্প নউয়ের ক্লাবটির সঙ্গে দুই দশকের সম্পর্ক ছিন্ন করে ফ্রি ট্রান্সফারে পিএসজিতে যোগ দেন আর্জেন্টাইন তারকা। 

গত জানুয়ারিতে বার্সেলোনার জন্য লা লিগার বেঁধে দেওয়া খরচের সীমা মাইনাস ১৪ কোটি ৪০ লাখ ইউরোয় নেমে এসেছিল। লিগে খরচের একমাত্র ‘নেগেটিভ ক্যাপ’ ছিল তাদের। যদিও সম্পদ বিক্রি করে খরচের সীমা বাড়িয়ে নেয় তারা ৬৫ কোটি ইউরোয়।  

যার ফলে গ্রীষ্মের দলবদলে ১৫ কোটির বেশি ইউরো খরচ করে রবের্ত লেভানদোভস্কি, রাফিনিয়া, জুল কুন্দে, ফঁক কেসিয়েদের দলে টানতে পারে বার্সেলোনা। 

সেটির প্রভাব পড়েছে মাঠের পারফরম্যান্সেও। এবারের লা লিগায় এখন পর্যন্ত অপরাজিত তারা। ৬ ম্যাচে পাঁচ জয় ও এক ড্রয়ে বার্সেলোনার পয়েন্ট ১৬। শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের থেকে পিছিয়ে আছে ২ পয়েন্টে। 

লা লিগার পক্ষ থেকে অবশ্য বার্সেলোনাকে সতর্ক করে বলা হয়েছে, খরচ না কমালে আগামী মৌসুমে তাদের খরচের সীমা আবারও কমে যেতে পারে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক