মেসিকে তুলে নেওয়ার কারণ জানালেন পিএসজি কোচ

মেসির কাছ থেকে ইঙ্গিত পেয়েই তাকে তুলে নেওয়া হয়েছিল, জানালেন পিএসজি কোচ ক্রিস্তফ গালতিয়ে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Oct 2022, 04:38 AM
Updated : 6 Oct 2022, 04:38 AM

চোট নয়, শ্রান্তি। বেনফিকার বিপক্ষে ম্যাচে লিওনেল মেসিকে খেলা শেষের একটু আগে তুলে নেওয়া হলেও চোটাঘাতের কোনো ব্যাপার সেখানে নেই। পিএসজি কোচ ক্রিস্তফ গালতিয়ে জানালেন, মেসির কাছ থেকে ইঙ্গিত পেয়েই তার বদলি নামানো হয় তরতাজা একজনকে।

বেনফিকার বিপক্ষে বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এই ম্যাচটি পিএসজির জন্য শেষ হয় হতাশায়। ২১তম মিনিটে মেসির নান্দনিক এক গোলে পিএসজি এগিয়ে গেলেও প্রথমার্ধেই দানিলো পেরেরার আত্মঘাতী গোলে ম্যাচে ফেরে সমতা। পরে আর কোনো গোল হয়নি।

৮১তম মিনিটে মেসিকে তুলে নেন গালতিয়ে। যখন গোলের মরিয়া চেষ্টায় দল, তখন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা তারকাকে তুলে নেওয়ায় সম্ভাব্য চোট নিয়ে প্রশ্ন জাগতে থাকে।

তবে ম্যাচ শেষে আরএমসি স্পোর্টের সঙ্গে কথোপকথনে সংশয় দূর করে দিলেন গালতিয়ে।

“সে (মেসি) ইশারা দিচ্ছিল যে বদলি একজনকে চায়। একটি স্প্রিন্ট টানার পর সে ক্লান্তি অনুভব করে। সে উঠে যেতে চেয়েছে কারণ সে ক্লান্ত হয়ে পড়েছিল এবং ম্যাচের ওই মুহূর্তে তরতাজা কোনো একজনের মাঠে থাকা বেশি জরুরি মনে করেছে।”

গালতিয়ে ম্যাচের পর কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন ভিএআরকে। ৪৫তম মিনিটে মার্কো ভেরাত্তিকে কড়া ট্যাকল করে হলুদ কার্ড দেখেন বেনফিকার এনসো ফের্নান্দেস। পিএসজি কোচের মতে, ওখানে লাল কার্ড দেখানো উচিত ছিল ফের্নান্দেসকে।

“ভিএআরের কথা বলতে গেলে, আমার মনে হয় রেফারিকে এটা খুব বেশি সহায়তা করতে পারেনি। প্রথমার্ধের আগেই মার্কো ভেরাত্তির পা ভেঙে যেতে পারত। রেফারিকে মাঠে অনেক কিছুতে মনোযোগ দিতে হয়, তার পক্ষে সবকিছু বিবেচনা করা কঠিন। সে ভুল করতেই পারে। কিন্তু আজকে ভেরাত্তির টিবিয়ায় প্রতিপক্ষের জোড়া পায়ের ট্যাকল নিয়ে ভিডিও অ্যাসিন্ট্যান্টের উচিত ছিল রেফারিকে বলা।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক