নাদালের সঙ্গে জুটি বেঁধে শেষের মঞ্চে ফেদেরার

লেভার কাপে টিম ইউরোপের হয়ে খেলে ক্যারিয়ারের ইতি টানবেন সুইস কিংবদন্তি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Sept 2022, 04:08 PM
Updated : 22 Sept 2022, 04:08 PM

ক্যারিয়ার জুড়ে রাফায়েল নাদালের বিপক্ষে অনেকবার মুখোমুখি হয়েছেন রজার ফেদেরার। জন্ম দিয়েছেন ধ্রুপদী দ্বৈরথের। সুইস তারকার বিদায়ী ম্যাচেও থাকছেন নাদাল। তবে এবার আর প্রতিপক্ষ হিসেবে নয়। আলো ঝলমলে সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারের শেষবেলায় স্প্যানিশ তারকার সঙ্গে জুটি বেঁধে কোর্টে নামবেন ফেদেরার।

লেভার কাপ দিয়ে প্রতিযোগিতামূলক টেনিস থেকে অবসরের ঘোষণা গত ১৫ সেপ্টেম্বর দেন ফেদেরার। লন্ডনে শুক্রবার শুরু হবে এই টুর্নামেন্ট।

আসরের প্রথম দিনেই হতে যাচ্ছে ফেদেরারের বিদায়ী মঞ্চ। দ্বৈত ম্যাচে নাদালের সঙ্গে টিম ইউরোপের প্রতিনিধিত্ব করবেন ৪১ বছর বয়সী ফেদেরার। তাদের প্রতিপক্ষ টিম ওয়ার্ল্ড’স- এর যুক্তরাষ্ট্রের দুই খেলোয়াড় জ্যাক সক ও কদিন আগে ইউএস ওপেনে নাদালকে হারিয়ে দেওয়া ফ্রান্সেস টিয়াফো।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নাদালকে ট্যাগ করে ফেদেরার বৃহস্পতিবার ঘোষণা দিয়েছেন, এটাই হতে যাচ্ছে তার ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ। উত্তর দিতে দেরি করেননি নাদালও। তিনি লিখেছেন, এই ম্যাচের অংশ হতে পেরে সম্মানিত ও আনন্দিত তিনি।

২০ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী ফেদেরার পরে বিবিসিকে বলেন, ২২টি মেজর শিরোপা জয়ী নাদালের সঙ্গে ম্যাচটি খেলতে পারা হবে তার জন্য অসাধারণ অনুভূতির।

“লড়াইটা পুরোপুরি সামাল দিতে পারব কি-না, আমি নিশ্চিত নই। তবে আমি চেষ্টা করব। অন্যরকম এক অনুভূতি হচ্ছে। তাকে আমার দলে পাওয়ায়, এবং তার বিপক্ষে খেলতেও হচ্ছে না, এর জন্য আমি খুশি।”

ম্যাচটি খেলার জন্য মুখিয়ে আছেন ৩৬ বছর বয়সী নাদালও।

“আমার টেনিস ক্যারিয়ারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ না হলেও, নিশ্চিতভাবেই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের একজন বিদায় নিচ্ছে। দিন শেষে, মুহূর্তটি হবে কষ্টদায়ক। তার সঙ্গে খেলার জন্য আমি অনেক বেশি রোমাঞ্চিত।”

১৯৯৮ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সে পেশাদার টেনিসে অভিষেক হয় ফেদেরারের। সময়ের পরিক্রমায় টেনিস ইতিহাসের সর্বকালের সেরাদের একজন হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন তিনি। এক সময়ের রেকর্ড ৩১০ সপ্তাহ ছিলেন র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে। এর মধ্যে ২৩৭ সপ্তাহ ছিল টানা, যেটি এখনও রেকর্ড।

চোটের ছোবল আর বয়সের ভারে ফেদেরারের পারফরম্যান্সে কয়েক বছর ধরেই ভাটার টান। দীর্ঘ দিন ভুগছেন হাঁটুর সমস্যায়। গত দুই বছরে তার হাঁটুতে অস্ত্রোপচার হয়েছে তিনবার। গত এক বছরের বেশি সময় ধরে খেলতে পারেননি প্রতিযোগিতামূলক টেনিস।

২০২১ সালের জুলাইয়ে উইম্বলডনের কোয়ার্টার-ফাইনালে হুবের্ত হুরকাজের বিপক্ষে হারের পর আর কোর্টে নামতে পারেননি তিনি। তারপরও ফিরতি চেয়েছিলেন খুব করে। চেষ্টাও চালিয়ে যাচ্ছিলেন, কিন্তু একটা সময় বুঝতে পারলেন, শরীর আর আগের মতো সাড়া দিচ্ছে না।

কঠিন সিদ্ধান্তটি তাই নিতে দেরি করেননি তিনি। দীর্ঘ দুই যুগের ক্যারিয়ারে এবার ইতি টানার পালা। লন্ডনের ‘ওটু অ্যারেনায়’ বসছে কিংবদন্তির বিদায়ী মঞ্চ, তার শেষ ম্যাচ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক