অভিষেকে শিরোপার স্বাদ পেয়ে আরও চাই মানের

জার্মান ক্লাবটির হয়ে অভিষেক ম্যাচে জালে দেখা পেয়ে উচ্ছ্বসিত সেনেগালের ফরোয়ার্ড।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 July 2022, 12:11 AM
Updated : 31 July 2022, 12:11 AM

নতুন চ্যালেঞ্জ নিতে জার্মান ফুটবলে পা রাখা সাদিও মানের শুরুটা হলো রঙিন। বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে প্রতিযোগিতামূলক ফুটবলে অভিষেকেই পেলেন জালের দেখা ও শিরোপার স্বাদ। স্বপ্নের শুরুর পর এবার আকাশ ছোঁয়ার লক্ষ্য সেনেগালের এই ফরোয়ার্ডের।

লাইপজিগের রেড বুল অ্যারেনায় শনিবার জার্মান সুপার কাপের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে স্বাগতিকদের ৫-৩ গোলে হারায় বায়ার্ন।

অধিকাংশ সময় ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ বায়ার্নের হাতেই ছিল। দ্বিতীয়ার্ধের কিছুটা সময় লাইপজিগ নাটকীয়তার আভাস দিলেও শেষ পর্যন্ত বড় জয়ই পায় বুন্ডেসলিগা চ্যাম্পিয়নরা। দলটির হয়ে একটি করে গোল করেন মানে, জামাল মুসিয়ালা, বাঁজামাঁ পাভার্দ, সের্গে জিনাব্রি ও লেরয় সানে।

গ্রীষ্মের দলবদলে লিভারপুল থেকে বায়ার্নে নাম লেখানো মানে দ্বিতীয়ার্ধে আরও দুবার বল জালে পাঠান। কিন্তু অফসাইডের কারণে গোল মেলেনি।

রবের্ত লেভানদোভস্কি বার্সেলোনায় পাড়ি দেওয়ার পর প্রতিযোগিতামূলক ফুটবলে বায়ার্নের এটিই ছিল প্রথম ম্যাচ। ‘গোল মেশিনকে’ ছাড়া কেমন হয় তাদের শুরু, এ নিয়ে কৌতূহল ছিল সবার। তবে ম্যাচে দলটির পাঁচ গোলই বলছে, অন্তত আক্রমণভাগ নিয়ে দুশ্চিন্তার অবকাশ নেই।

ম্যাচ শেষে সংবাদমাধ্যমে নিজের অনুভূতি জানান মানে। টিজেডকে বলেন, জিততে চান আরও অনেক শিরোপা।

“বায়ার্নের হয়ে প্রথম গোল পেয়ে আমি খুব খুশি। এটা আমার স্বপ্ন। আমি আরও শিরোপা জিততে চাই।”

মানে তার গোলটা করেন ম্যাচের ৩১তম মিনিটে। বাঁ দিক থেকে জিনাব্রির পাসে ছয় গজ বক্সের মুখে বাঁ পায়ের শটে বল জালে পাঠান তিনি। দারুণ পাস দেওয়া সতীর্থকেও প্রশংসায় ভাসান ৩০ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড।

“সের্গে (জিনাব্রি) দারুণ পাস দিয়েছিল। আমরা এরকমই অনুশীলন করি। তার কাছে বল গেলে আমাকে ডি-বক্সে থাকতে হবে। জানতাম আমি পাস পাব।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক