বার্সেলোনার সামনে এখন ‘তিন ফাইনাল’

চ্যাম্পিয়ন লিগে তিন ম্যাচে স্রেফ একটি  জয়ের পর বাকি সব ম্যাচকেই ফাইনাল মনে করছেন বার্সেলোনা কোচ শাভি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Oct 2022, 08:07 AM
Updated : 5 Oct 2022, 08:07 AM

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের খেলা চলছে কেবল। ফাইনাল তো অনেক দূরের পথ। তবে এখনই ফাইনালের মতো পরিস্থিতির আঁচ পাচ্ছেন শাভি এরনান্দেস। সেটিও একটি নয়, তিনটি ফাইনাল! তবে সেগুলো ট্রফি জয়ের ফাইনাল নয়, বরং টিকে থাকার লড়াই। গ্রুপ পর্বের বাকি তিন ম্যাচকেই বার্সেলোনা কোচ দেখছেন ফাইনাল হিসেবে।

ইন্টার মিলানের কাছে মঙ্গলবার হেরে যাওয়ার পর এই কোণঠাসা অবস্থায় পড়ে গেছে বার্সেলোনা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গত আসরের মতো এবারও গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়ার শঙ্কায় তারা। ইন্টারের আগে তারা হেরেছে বায়ার্ন মিউনিখের কাছেও। সব মিলিয়ে তিন ম্যাচে স্রেফ এক জয় নিয়ে এখন তারা আছে গ্রুপের তিন নম্বরে।

ইন্টারের কাছে ১-০ গোলে হেরে যাওয়া ম্যাচে অবশ্য রেফারিং নিয়ে প্রবল ক্ষুব্ধ শাভি। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে পেদ্রি জালে বল পাঠালেও রেফারি গোল বাতিল করে দেন ভিএআরের সাহায্য নিয়ে। আগেই বল লাগে আনসু ফাতির হাতে। পরে একদম শেষ সময়ে তারা পেনালিটর দাবি জানান, যেটিও রেফারি বাতিল করে দেন ভিএআরের সহায়তা নিয়ে। ম্যাচের পর এসব নিয়ে রেফারিকে কাঠগড়ায় তোলেন শাভি।

তবে শুধু রেফারির দিকে আঙুল তোলাই নয়, নিজেদের দায়ও মেনে নিলেন তিনি।

“রেফারির সিদ্ধান্তগুলির বাইরে আত্মসমালোচনাও করতে হবে আমাদের। আরও ভালো খেলতে হবে, যদিও অন্তত ড্র আমাদের প্রাপ্য ছিল। তবে এমন নয় যে এটিই মৌসুমে আমাদের সবচেয়ে বাজে ম্যাচ। দ্বিতীয়ার্ধে আমরা ভালো খেলেছি, শেষ আধঘণ্টায় বেশ ভালো খেলেছি। ওদেরকে কোণঠাসা করেছি, চেষ্টা করেছি…।”

“তবে প্রথমার্ধে আমরা যেভাবে খেলেছি, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচের জন্য তা যথেষ্ট ভালো নয়। আমাদেরকে আরও প্রাণবন্ত ও গতিময় হতে হবে, বল চালাচালিতে আরও কার্যকর হতে হবে।”

গ্রুপের বাকি ম্যাচগুলোয় আর পা হড়কানোর কোনো সুযোগ দেখছেন না বার্সেলোনা কোচ।
“এখন আমরা অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়ে গেছি। তিনটি ম্যাচ বাকি আছে আমাদের, সবই ফাইনাল ম্যাচ। দুটি ঘরের মাঠে। এই হারের পর অবশ্যই দুর্ভাবনায় পড়ে গেছি। কারণ আমাদের পয়েন্ট স্রেফ ৩, ইন্টারের ৬, বায়ার্নের ৯। কঠিন অবস্থায় আছি আমরা। আর হোঁচট খাওয়ার সুযোগ নেই।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক