ফেলিক্সের গোলে আতলেতিকোকে হারিয়ে তিনে বার্সা

এক ম্যাচ পর লা লিগায় জয়ের পথে ফিরল শাভি এর্নান্দেসের দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Dec 2023, 10:01 PM
Updated : 3 Dec 2023, 10:01 PM

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে লড়াই হলো দারুণ। বেশিরভাগ সময়ে অবশ্য দাপট দেখাল বার্সেলোনা। জয়ের হাসিও তাদের। আতলেতিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে লিগ টেবিলে তিন নম্বরে উঠল শাভি এর্নান্দেসের দল।

অলিম্পিক স্টেডিয়ামে রোববার রাতে লা লিগার ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে শিরোপাধারীরা। ব্যবধান গড়ে দেওয়া গোলটি করেছেন গত গ্রীষ্মে আতলেতিকো থেকে ধারে বার্সেলোনায় আসা জোয়াও ফেলিক্স।

লিগে আতলেতিকোর বিপক্ষে এই নিয়ে টানা চার ম্যাচ জিতল বার্সেলোনা, সবগুলোই শাভি দায়িত্ব নেওয়ার পর।

বার্সেলোনায় লা লিগায় আতলেতিকোর জয়খরা দীর্ঘ হলো আরও, ১৮ ম্যাচ (৫ ড্র, ১৩ হার)। মাদ্রিদের দলটি সবশেষ এখানে জিতেছিল ২০০৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে।

দ্বিতীয় মিনিটেই প্রথম সুযোগ পায় বার্সেলোনা। পেদ্রিকে পাস দিয়ে বক্সে ঢুকে পড়েন রাফিনিয়া। ফিরতি বল পেয়ে প্রতিপক্ষের একজনের বাধা এড়িয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। দ্বাদশ মিনিটে জুল কুন্দের ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখ থেকে ভলি লক্ষ্যে রাখতে পারেননি রবের্ত লেভানদোভস্কি।

২৮তম মিনিটে কাঙ্ক্ষিত গোল পেয়ে যায় বার্সেলোনা। মাঝমাঠ থেকে কুন্দের পাস খুঁজে পায় রাফিনিয়াকে। তিনি বল দেন ফেলিক্সকে। বক্সের বাইরে তাকে আটকানোর চেষ্টায় পারেননি নাহুয়েল মোলিনা। ভেতরে ঢুকে ছয় গজ বক্সের কোণা থেকে চিপ শটে এগিয়ে আসা গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ২৪ বছর বয়সী পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

লা লিগায় বার্সেলোনার হয়ে ১২ ম্যাচে ফেলিক্সের দ্বিতীয় গোল এটি। প্রথমটি করেছিলেন গত সেপ্টেম্বরে রেয়াল বেতিসের বিপক্ষে দলের ৫-০ গোলে জয়ের ম্যাচে।

গত মঙ্গলবার পোর্তোর বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচেও জালের দেখা পান ফেলিক্স; কাটান ১২ ম্যাচের গোলখরা।

৩৩তম মিনিটে বক্সের ভেতর থেকে আতলেতিকোর ডিফেন্ডার মারিও এরমোসোর শট দূরের পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়। তিন মিনিট পর সুযোগ এসে যায় অঁতোয়ান গ্রিজমানের সামনে। বক্সে ফরাসি ফরোয়ার্ডের শট স্লাইডে বিপদমুক্ত করেন ফ্রেংকি ডি ইয়ং।

বিরতির আগে দ্বিতীয় গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিলেন ফেলিক্স। বাঁ দিক থেকে লেভানদোভস্কির পাসে ফেলিক্সের প্রচেষ্টা ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক ইয়ান ওবলাক।

দ্বিতীয়ার্ধেও আক্রমণে আধিপত্য ধরে রাখে বার্সেলোনা। ৫৮তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারত, কিন্তু রাফিনিয়ার শট লাগে পোস্টে।

৮০তম মিনিটে দুর্দান্ত সেভে বার্সেলোনার ত্রাতা ইনাকি পেনা। মেমফিস ডিপাইয়ের ফ্রি কিক যাচ্ছিল জালের দিকে, লাফিয়ে ওঠা গোলরক্ষকের হাত ছুঁয়ে বল ক্রসবারে লাগে।

নির্ধারিত সময়ের চার মিনিট বাকি থাকতে জয় প্রায় নিশ্চিত করার সুযোগ আসে লেভানদোভস্কির সামনে। বক্সে ঢুকে একজনের বাধা এড়িয়ে পোলিশ তারকার শট বাইরে দিয়ে যায়।

যোগ করা সময়ে আরেকটি দারুণ সেভে বার্সেলোনার তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করেন পেনা। দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নামা আনহেল কোররেয়ার জোরাল শট হাত বাড়িয়ে ঠেকান তিনি।

প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনের চোটে এই নিয়ে বার্সেলোনার টানা তিন ম্যাচে পোস্টের দায়িত্ব সামলালেন পেনা। আগের দুই ম্যাচে জাল অক্ষত রাখতে না পারলেও এবার তা করে দেখালেন ২৪ বছর বয়সী স্প্যানিশ গোলরক্ষক।

১৫ ম্যাচে ১০ জয় ও ৪ ড্রয়ে বার্সেলোনার পয়েন্ট হলো ৩৪। এক ম্যাচ কম খেলে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে চারে নেমে গেল আতলেতিকো।

বার্সেলোনার সমান ১৫ ম্যাচে ৩৮ পয়েন্ট করে নিয়ে জিরোনা দুইয়ে, রেয়াল মাদ্রিদ শীর্ষে আছে।