নিজেদের ভুলে জয় হাতছাড়া ইউনাইটেডের

আগের ম্যাচ থেকে একাদশে পরিবর্তন ১১টি! তবু ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের শুরুটা হলো দারুণ। কিন্তু মারাত্মক ভুল করে বসলেন ডনি ফন ডি বিক। ইয়াং বয়েজের বিপক্ষে জয় হাতছাড়া হলো ম্যানচেস্টারের দলটির।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Dec 2021, 10:05 PM
Updated : 9 Dec 2021, 09:17 AM

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে বুধবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ‘এফ’ গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। গ্রুপ সেরা হয়ে তাদের শেষ ষোলোয় খেলা নিশ্চিত হয়েছিল অবশ্য আগেই।

অতিরিক্ত তুষারপাতের কারণে আতালান্তার মাঠে ভিয়ারিয়ালের ম্যাচটি স্থগিত হয়ে গেছে। ম্যাচটি হতে পারে বৃহস্পতিবার। গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে নকআউট পর্বে ওঠার লড়াইয়ে আছে এই দুই দল।

প্রিমিয়ার লিগে গত রোববার ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে ১-০ গোলে জেতা ম্যাচের পুরো একাদশেই পরিবর্তন আনেন ইউনাইটেডের নতুন কোচ রালফ রাংনিক। ওই ম্যাচ দিয়ে নতুন ঠিকানায় পথচলা শুরু হয় এই জার্মানের।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ছিলেন না বেঞ্চেও। ঘরের মাঠে ইউনাইটেডের শুরুটা হয় আলো ঝলমলে। নবম মিনিটে ম্যাসন গ্রিনউডের চমৎকার গোলে এগিয়ে যায় তারা। বাঁ দিকের বাইলাইনের কাছাকাছি থেকে লুক শর ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখে অ্যাক্রোবেটিক শটে জাল খুঁজে নেন তরুণ ইংলিশ ফরোয়ার্ড।

২৬তম মিনিটে ফ্রি-কিকে উড়িয়ে মেরে হতাশ করেন হুয়ান মাতা। চার মিনিট পর ভালো পজিশনে থেকে শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি জেসে লিনগার্ড। এরপর মাতার শট ঠেকান এক ডিফেন্ডার।

পরের মিনিটে ইয়াং বয়েজের ক্রিস্টোফার মার্তিন্সের দূর থেকে নেওয়া শট ফিরিয়ে জাল অক্ষত রাখেন ইউনাইটেড গোলরক্ষক ডিন হেন্ডারসন।

বিরতির আগে প্রতিপক্ষকে একরকম গোল উপহার দেয় স্বাগতিকরা। নিজেদের ডি-বক্সের সামনে ফন ডি বিক বল তুলে দেন ফাবিয়ানের পায়ে। বাঁ পায়ের জোরালো শটে সমতা ফেরান সুইস মিডফিল্ডার।

দ্বিতীয়ার্ধে হেন্ডারসনের জায়গায় আরেক গোলরক্ষক টম হিটনকে নামান ইউনাইটেড কোচ। প্রথমবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে যোগ দেওয়ার প্রায় দুই দশক পর তাদের মূল দলে অভিষেক হলো ৩৫ বছর বয়সী এই ফুটবলারের।

২০০২ সালে ইউনাইটেডের যুব দলে যোগ দেওয়া হিটন ২০০৫ থেকে ২০১০ পর্যন্ত ধারে কাটান অন্য ক্লাবে। এরপর অনেক ক্লাব ঘুরে গত জুলাইয়ে পুরনো ঠিকানায় ফেরেন এই ইংলিশ গোলরক্ষক।

দ্বিতীয়ার্ধে ইউনাইটেড সেভাবে পরিষ্কার সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। ইয়াং বয়েজই বরং দুটি ভালো সুযোগ পেয়েছিল; কিন্তু বাইরে মেরে হাতছাড়া করে তারা।

ছয় ম্যাচে তিন জয় ও দুই ড্রয়ে ১১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এক ম্যাচ করে কম খেলে ভিয়ারিয়াল ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে, ৬ পয়েন্ট নিয়ে আতালান্তা তিনে আছে। ৬ ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে বিদায় নিয়েছে ইয়াং বয়েজ।

‘জি’ গ্রুপে চার দলের সম্ভাবনা নিয়েই শুরু হয় শেষ রাউন্ড।

ভলফসবুর্কের মাঠে ৩-১ গোলে জিতে ১১ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ সেরা হয়েছে ফ্রান্সের ক্লাব লিল। আরেক ম্যাচে ঘরের মাঠে সেভিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়ে শেষ ষোলোয় উঠেছে সালসবুর্ক। অস্ট্রিয়ার ক্লাবটির পয়েন্ট ১০।

৬ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় সেভিয়া, ইউরোপা লিগে খেলবে তারা। তলানিতে ভলফসবুর্কের পয়েন্ট ৫।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক