রবিনিয়োর জোড়া গোলে আবাহনীকে হারাল কিংস

মর্যাদার লড়াইয়ে আবাহনীকে হারিয়েছে অস্কার ব্রুসনের দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 July 2022, 12:31 PM
Updated : 25 July 2022, 12:31 PM

লিগ শিরোপার নিষ্পত্তি আগেভাগে হয়ে গেলেও বসুন্ধরা কিংস ও আবাহনীর মধ্যকার ম্যাচটি উত্তেজনা ছড়াল। মর্যাদার লড়াইয়ে বদলি ফরোয়ার্ড রবসন দি সিলভা রবিনিয়োর জোড়া গোলে দারুণ জয় পেল চ্যাম্পিয়নরা।

কিংস অ্যারেনায় সোমবার পাঁচ গোলের ম্যাচটি ৩-২ ব্যবধানে জিতেছে স্বাগতিকরা। প্রথম লেগে দুই দলের ম্যাচটি ২-২ ড্র হয়েছিল।

দুই ম্যাচ বাকি রেখে শিরোপা নিশ্চিত করা কিংসের ২১ ম্যাচে পয়েন্ট ৫৪। রানার্সআপ আবাহনীর পয়েন্ট ৪৪। দুই দলের আর একটি করে ম্যাচ বাকি আছে।

ম্যাচ জুড়ে দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়াল।

১৫তম মিনিটে বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে গিয়ে মিগেল ফিগেইরা দামাশেনোকে আবাহনীর মিলাদ শেখ সুলেমানি কনুই দিয়ে গুঁতো দিয়ে ফেলে দেন। মিগেল উঠে চড়াও হন সুলেমানির উপর। এরপর আবাহনী গোলরক্ষক শহীদুল আলম সোহেল ছুটে এসে ধাক্কা দেন, শুরু হয় ধাক্কাধাক্কি। উত্তেজনা থামার পর মিগেল ও শহীদুলকে হলুদ কার্ড দেন রেফারি জিএম চৌধুরী নয়ন।

১৯তম মিনিটে এগিয়ে যায় কিংস। মিগেল ফ্রি কিকে বক্সের ভেতরে ফাঁকায় থাকা নুহা মারোং স্লাইডিং ব্যাক হেডের চেষ্টা করেছিলেন, বল তার পিঠ ছুঁয়ে জালে জড়ায়। ১০ মিনিট পর শহীদুলকে একা পেয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করতে পারেননি গাম্বিয়ার এই ফরোয়ার্ড।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে সমতার স্বস্তি ফেরে আবাহনীর তাঁবুতে। দুই ডিফেন্ডারের ফাঁক গলে দোরিয়েলতনের বাড়ানো বল নিখুঁত কোনাকুনি শটে জালে জড়ান রাকিব।

দ্বিতীয়ার্ধে একের পর এক সুযোগ তৈরি করতে থাকে আবাহনী। ৫৯তম মিনিটে দোরিয়েলতনের হেড অল্পের জন্য ক্রসবারের উপর দিয়ে বেরিয়ে যায়। এরপর কলিনদ্রেসের ফ্রি কিকে ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডের আরেকটি হেডের পরিণতিও হয় একই।

৭০তম মিনিটে রবিনিয়োর কোনাকুনি শটে কিংস এগিয়ে যায় আবারও। ৮২তম মিনিটে দোরিয়েলতের হেড পোস্টে লেগে ফেরে।

যোগ করা সময়ে রবিনিয়োর গোলে চলতি লিগে নিজেদের মাঠে কিংসের অপরাজিত থাকা নিশ্চিত হয়ে যায় অনেকটাই। শেষের বাঁশি বাজার আগ মুহূর্তে স্পট কিক থেকে ব্যবধান কমান দোরিয়েলতন। এই ব্রাজিলের শট প্রথম দফায় আনিসুর রহমান জিকো ফেরালেও ফিরতি শট আটকাতে পারেননি। তাতে অবশ্য কিংসের জয়ের উৎসবে ভাটা পড়েনি একটুও।

কিংসকে হারিয়েই মৌসুম শুরুর টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপ জিতেছিল আবাহনী। মারিও লেমোসের দল পরে জেতে ফেডারেশন কাপও। কিন্তু লিগে রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো আকাশী-নীল জার্সিধারীদের।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক