নারায়ণগঞ্জে ইজিবাইকে ধাক্কা, পুলিশের মাইক্রোবাসে আগুন

মাইক্রোবাসের ধাক্কায় অটোরিকশাটি উল্টে রাস্তার পাশে একটি গাছে আটকে যায়।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 August 2022, 12:20 PM
Updated : 1 August 2022, 12:20 PM

নারায়ণগঞ্জে পুলিশবাহী একটি মাইক্রোবাসের ধাক্কায় একটি অটোরিকশা উল্টে যাওয়ার পর ক্ষুব্ধ লোকজন মাইক্রোবাসটি জ্বালিয়ে দিয়েছে।

সোমবার সকালে আড়াইহাজার উপজেলা ও নরসিংদীর সীমান্তবর্তী শিমুলতলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এ দুর্ঘটনায় অটোরিকশা চালক ও চার শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

আহতরা হলেন পুরিন্দা কেএম সাদেকুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মিম, ইউসুফ, ফাহিমা ও রাজিয়া।

এদের মধ্যে মিম ও ইউসুফকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী ও শিক্ষার্থীরা জানান, ইজিবাইকে করে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক দিয়ে পুরিন্দা কেএম সাদেকুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম ও দশম শ্রেণির চার শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ের দিকে যাচ্ছিলেন। নারায়ণগঞ্জ ও নরসিংদীর সীমান্তবর্তী শিমুলতলায় একটি মাইক্রোবাস পেছন ধাক্কা দিলে অটোরিকশাটি উল্টে যায়। এতে চালক ও চার শিক্ষার্থী আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন ও শিক্ষার্থীরা মাইক্রোবাসটিকে ভাঙচুর করে আগুন ধরিয়ে দেয়।

আহত শিক্ষার্থীদের বরাতে পুরিন্দা কেএম সাদেকুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মফিজুল ইসলাম বলেন, বিদ্যালয়ের এক কিলোমিটার দূরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। মাইক্রোবাসটির ধাক্কায় ইজিবাইকটি উল্টো গিয়ে রাস্তার পাশে একটি গাছের সঙ্গে আটকে যায়।

“গাছে না আটকালে খাদে পড়ে যেত ইজিবাইকটি। তাতে প্রাণহানির শঙ্কা ছিল।”

প্রধান শিক্ষক জানান, এই দুর্ঘটনায় দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী মিম ও ইউসুফের বুকে ও হাতে বেশি আঘাত হয়েছে। তারা দুজন নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি আছেন। আহত অপর দুই শিক্ষার্থী ফাহিমা ও রাজিয়া প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

ইজিবাইক চালকের পরিচয় জানা যায়নি।

আড়াইহাজার থানার ওসি আজিজুল হক জানান, মাইক্রোবাসে নরসিংদীর ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যরা ছিলেন। ধাক্কা দেওয়ার পর শিক্ষার্থীরা রাস্তায় ছিটকে পড়ে আহত হন। স্থানীয় জনতা মাইক্রোবাসে ভাঙচুর চালিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এই ঘটনায় মহাসড়কে যানজট সৃষ্টি হলে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থতি নিয়ন্ত্রণে আনে বলে ওসি জানান।

আহতদের ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে; এই ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও তিনি জানান।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক