নারায়ণগঞ্জে কিশোর তুহিন হত্যা: বাবা ও ২ ছেলে গ্রেপ্তার

২৪ অগাস্ট সকালে ফার্নিচারের দোকানে তুহিনের মরদেহ পাওয়ার পর থেকে হোটেল বন্ধ করে দিয়ে আসামিরা গা ঢাকা দেন।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Sept 2022, 06:12 PM
Updated : 10 Sept 2022, 06:12 PM

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় কিশোর তুহিন হত্যা মামলায় বাবা ও দুই ছেলেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১।

শুক্রবার রাতে চাঁদপুর জেলার রঘুনাথপুরের ভাঙ্গাপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে শনিবার বিকালে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তানভীর মাহমুদ পাশা।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন- ওই এলাকার প্রয়াত আব্দুল মান্নানের ছেলে মোস্তফা (৫৫), তার দুই ছেলে রনি (২০) ও আল-আমিন (২৫)।

গত ২৪ অগাস্ট নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ঝাউচর এলাকার একটি ফার্নিচারের দোকান থেকে তুহিনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত তুহিন উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি এলাকার মনির হোসেনের ছেলে।

র‌্যাব জানায়, তুহিনের বাবা মনির বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মাদকের চালান দেখে ফেলায় পিটিয়ে এবং শ্বাসরোধ করে তার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করেন বাদী।

“মামলার ছায়াতদন্ত চালিয়ে আসামিদের অবস্থান নিশ্চিত করে চাঁদপুর থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।”

প্রাথমিক অনুসন্ধান ও মামলার এজাহারের বরাতে র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক তানভীর মাহমুদ জানান, ১৬ বছর বয়সী তুহিন তার মামার ফার্নিচারের দোকানে কাজ করতো। রাতে সেখানেই সে ঘুমাতো। একই এলাকার রনি এবং আল-আমিন দীর্ঘদিন ধরে হিরাঝিল আবাসিক হোটেলে মাদকদ্রব্য সরবরাহ করে আসছিল।

গত ২২ অগাস্ট ফেন্সিডিলের কার্টন হোটেলের পাশের কক্ষে নিয়ে যাওয়ার সময় তুহিন দেখে ফেলে। এ ঘটনা পুলিশকে জানিয়ে দেবে বললে আসামিরা তুহিনকে মারপিট করে এবং মাদকের বিষয়ে কাউকে কিছু বললে হত্যার হুমকি দেন। এরপর ২৪ অগাস্ট সকালে ফার্নিচারের দোকানে তুহিনের মরদেহ পাওয়ার পর থেকে হোটেল বন্ধ করে দিয়ে আসামিরা গা ঢাকা দেন।

গ্রেপ্তার তিনজনকে সোনারগাঁ থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানায় র‌্যাব।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক