ঠাকুরগাঁওয়ে ‘বিদ্যালয়ের কলের পানি পানে’ ৬০ শিক্ষার্থী অসুস্থ

ছত্রাকনাশক কোনো রাসায়নিক মিশ্রিত পানি পানে এ ধরনের লক্ষণ দেখা যেতে পারে বলে চিকিৎসকের ভাষ্য।

মো. শাকিল আহমেদঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Sept 2022, 07:30 PM
Updated : 28 Sept 2022, 07:30 PM

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলায় একটি বিদ্যালয়ে টিউবওয়েলের পানি পান করে ৬০ জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়েছে। 

হরিপুর থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, বুধবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলার শীতলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। 

ঘটনার পর বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মনে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। 

অসুস্থ শিক্ষার্থীদের হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) মোহম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, বিদ্যালয়ের পানি পান করার পর প্রথমে চার জন ও পরে আরও তিনজন হাসপাতালে আসে পেট ব্যথা ও বমির লক্ষণ নিয়ে। তাদের মাঝে তিনজন বেশি অসুস্থ। এই সাত জনের অসুস্থতা দেখে মনে হয়েছে টিউবওয়েলের পানিতে খুব ভারি বিষ জাতীয় কিছু মেশানো হয়নি। 

“তবে ছত্রাকনাশক কোনো রাসায়নিক মিশ্রিত পানি পানে এ ধরনের লক্ষণ দেখা যেতে পারে।” 

তিনি বলেন, “এই সাত জনের বাইরে ওই বিদ্যালয়ের আরও ৫৩ জন শিক্ষার্থী আতঙ্কিত হয়ে হাসপাতলের ভর্তি হয়েছেন। আমরা সকলের চিকিৎসা দিচ্ছি। ৬০ জনেই এখন শঙ্কামুক্ত।”  

ওই বিদ্যালয়ের টিউবওয়েলের পানি সংগ্রহ করেছেন এবং নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হবে বলে তিনি জানান। 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী নাদিয়া বলেন, “পিপাসা লাগলে কয়েকজন বান্ধবী মিলে বিদ্যালয়ের টিউবওয়েলের পানি পান করি। টিউবওয়েলের পানি পান করার পর থেকে পেট ব্যথা করতে শুরু করে। ধীরে ধীরে ৩০ মিনিটের মধ্যে অসুস্থতা বোধ করি। তখন স্কুল থেকে ভ্যানে করে হাসপাতালে নেওয়া হয় আমাদের।” 

আরেক শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার বলেন, “পানি পান করার কিছুক্ষণ পর থেকেই অসুস্থতাবোধ করতে থাকি। আমার সাথে ক্লাসের আরও ৮-১০ জনের মত শিক্ষার্থীও অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমাদের সবাইকে হাসপাতলে ভর্তি করে। এখন ভালো আছি।” 

এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক নজরুল ইষলাম বলেন, “হঠাৎ খবর পাই আমার মেয়ে নাসরিন অসুস্থ। তাকে হাসপাতলে নেওয়া হয়েছে। হাসপাতলের এসে শুনি বিদ্যালয়ের টিউবওয়েলের পানি পান করে অসুস্থ হয়েছে। আমি চাই বিষয়টি প্রশাসন খতিয়ে দেখবে।” 

এ বিষয়ে জানতে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত  প্রধান শিক্ষক আলতাফুর রহমান বলেন, বিদ্যালয়ে একটি ক্লাস শেষে ছাত্রীরা টিউবওয়েলের পানি পান করার পর এ ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে শিক্ষার্থীদের হাসপাতলে ভর্তি করানো হয়। আল্লাহর অশেষ রহমতে শিক্ষার্থীরা ভালো রয়েছে। তবে কেন এমনটি হলো এটি অবশ্যই প্রশাসন তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।  

হরিপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রাইহানুল ইসলাম মিঞা বলেন, টিউবওয়েলের পানি পান করে ৬ জনের মতো শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়েছে এমন খবর পাওয়া যায়। তাৎক্ষণিকভাবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বলা হয় পানি পান বন্ধ করতে এবং পুলিশকে জানানো হয়। বর্তমানে হাসপাতালে ৩০ জনের মতো শিক্ষার্থী চিকিৎসা নিচ্ছেন। চিকিৎসকরা বলেছেন তারা শঙ্কামুক্ত। 

হরিপুর থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, “ধারণা করা হচ্ছে বিদ্যালয়ের টিউবওয়েলে কোনো বিষ জাতীয় কিছু মেশানো হয়েছে। আমরা ঘটনাটি তদন্ত করছি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক