‘জমির বিরোধে’ বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যা, আটক ৩

সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, গুরুতর আহত চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে অন্যত্র পাঠানো হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 August 2022, 12:40 PM
Updated : 4 August 2022, 12:40 PM

লক্ষ্মীপুরের সদর উপজেলার জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। হামলায় আরও চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়নের রমাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে বলে লক্ষ্মীপুর শহর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. জহিরুল আলম জানান

নিহত হোসেন আহমেদ (৫৫) ওই এলাকার আলী আহমদের ছেলে।

আহতরা হলেন, নিহতের ভাই আমির হোসেন, তার ভাগ্নে মনির হোসেন, আমির হোসেনের দুই ছেলে আকরাম হোসেন (২২) ও নাজমুল হোসেন (১৮)। তাদের লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় আবদুর রহিম, মেহেদি হাসান বাবুল ও জাহানারা বেগম নামে তিনজনকে আটক করা হয়েছে বলে লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পলাশ কান্তি নাথ জানান।

স্থানীয়রা জানান, রমাপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তার মাস্টারের ছেলে মোরশেদ আলমের সঙ্গে ইউনুস মাস্টারের ছেলেদের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। বৃহস্পতিবার একটি পক্ষ বিরোধপূর্ণ জমিতে ঘর নির্মাণ করতে গেলে অপর পক্ষ বাধা দেয়। এতে দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষে সাত্তার মাস্টারের জামাতা হোসেন আহমেদসহ পাঁচজন গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে হোসেন আহমেদের মৃত্যু হয়।

সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক শামীম মো. আফজাল বলেন, হোসেন আহমেদকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। এ ছাড়া গুরুতর আরও চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে অন্যত্র পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, নিহত হোসেন আহমেদের গলায় এবং মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত ছিল। এ ছাড়া আহতদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের গুরুতর আঘাত আছে।

লক্ষ্মীপুর শহর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. জহিরুল আলম বলেন, নিহতের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক