রাজশাহীর মেয়রকে ‘চিঠি’, কারণ দর্শানোর নোটিস পেলেন শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান

চিঠি পাওয়ার ১০ কার্যদিবসের মধ্যে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যানকে সুস্পষ্ট কারণ ব্যাখ্যা করতে বলা হয়েছে।

রাজশাহী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Sept 2022, 01:40 PM
Updated : 30 Sept 2022, 01:40 PM

রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে ‘ঔদ্ধত্যপূর্ণ’ চিঠি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়ার পর রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যানকে কারণ দর্শাতে বলেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

গত ২২ সেপ্টেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ আবু নাসের বেগ স্বাক্ষরিত এক পত্রে শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানকে এই নোটিস দেওয়া হয়।

চিঠি পাওয়ার ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

তবে এখনও কারণ দর্শনোর নোটিস পাননি বলে জানিয়েছেন হাবিবুর রহমান।

কারণ দর্শনের চিঠিতে হাবিবুর রহমানের দেওয়া চিঠি থেকে উদ্ধৃত করা হয়।

হাবিবুর রহমানের চিঠিতে বলা হয়: “আপনার সঙ্গে আমাকে দেখা করার জন্য গেটে অপেক্ষা করতে হবে! আপনার কাছে সময় চাইতে হবে? বিষয়টি কল্পনা করা আমার জন্য দুরহ। আপনি জানেন কি আমার জা শাশুড়ি এমপি। আমার আওয়ামী পরিবারে জন্ম। ভবিষ্যতে আমিও এমপি বা মন্ত্রী হতে পারি। গাজীপুরের ও কাটাখালির মেয়রদের দিকে তাকান। বর্তমানে তাঁদের কি অবস্থা?”

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারণ দর্শানোর চিঠিতে চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানকে বলা হয়, “একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত থেকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদার প্রতি উদাসীন এবং ঔদ্ধত্যপূর্ণ আপনার এ ধরনের মন্তব্য একজন দায়িত্বশীল সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ এর পরিপন্থি।

পত্র প্রাপ্তির ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাহফুজ মিশু বলেন, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান স্বাক্ষরিত চিঠিটি গত ১৮ জুলাই ডাকযোগে সিটি মেয়র বরাবর পাঠানো হয়। একদিন পর আমরা চিঠিটি পাই। চিঠির বিষয় অবহতি করে ২ অগাস্ট স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছিল সিটি করপোরেশন থেকে।

তিনি জানান, এরপর ২৪ অগাস্ট স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোহাম্মদ জহরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হয়।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের ওই চিঠিতে বলা হয়, রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়রকে উদ্দেশ্য করে একটি ‘ঔদ্ধত্যপূর্ণ’ পত্র লিখেছেন।

মেয়র একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও বর্তমানে প্রতিমন্ত্রীর মর্যদাসম্পন্ন ব্যক্তি। তাছাড়া তিনি বর্তমান ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অন্যতম প্রেসিডিয়াম সদস্য।

এই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

তবে এর আগে ২৬ জুলাই শিক্ষা বোর্ড থেকে আরেকটি চিঠি পাঠানো হয়, যেখানে চেয়ারম্যানের নামে পাঠানো চিঠির স্বাক্ষর জাল বলে দাবি করা হয়।

এ বিষয়ে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান বলেন, “আমি এ ধরনের কোনো চিঠি মেয়রকে দিইনি। চিঠিটি কীভাবে গেল তা আমি জানি না। চিঠিতে স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে। বিষয়টি আমি লিখিতভাবে মেয়রকে জানিয়েছি। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারণ দর্শনের নোটিশটিও আমি হাতে পাইনি। পেলে জবাব দেব।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক