শাহজালালে শিক্ষার্থীদের উপর ‘হামলার’ প্রতিবাদে জাবিতে বিক্ষোভ

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর ‘হামলার’ প্রতিবাদে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Jan 2022, 05:26 PM
Updated : 16 Jan 2022, 05:26 PM

রোববার রাত ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বর থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় এসে শেষ হয়। পরে সেখানে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করা হয়।  

সমাবেশে জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোটের পক্ষে জাবি ডিবেট অর্গানাইজেশনের সহ-সভাপতি তাপসী দে প্রাপ্তি বলেন, “বিচারহীনতার এই রাষ্ট্রের প্রত্যক্ষ নজীর আজকের এই হামলা, যেখানে ছাত্রীরা হলের নিরাপত্তা ও অব্যবস্থাপনা নিয়ে বলতে গিয়ে শিক্ষকের স্বৈরাচারী আচরণের মুখোমুখী হন। শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে না নিলে আমাদের প্রতিরোধ আরও জোরদার হবে।”

ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের দপ্তর সম্পাদক ঋদ্ধ অনিন্দ্য গাঙ্গুলি বলেন, “নিরস্ত্র ছাত্ররা নিজেদের দাবি-দাওয়া নিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে গিয়েছিল। তাদের মারার জন্য ‘সোয়াট’ বাহিনী নিয়ে আসা একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা।”

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট জাবি শাখার আহ্বায়ক শোভন রহমান বলেন, আগে শিক্ষকরা বলতেন শিক্ষার্থীদের গায়ে গুলি করার আগে তাদের গায়ে গুলি করতে হবে। কিন্তু বর্তমানে শিক্ষক-উপাচার্যরা তাদের দুর্নীতি, অনিয়ম ঢাকার জন্য ছাত্র ও পুলিশকে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর লেলিয়ে দেয়।

হামলার নিন্দা জানিয়ে তিনি শাবি শিক্ষার্থীদের তিন দফা দাবি অবিলম্বে মেনে নেওয়ার আহ্বান জানান।

শাবির বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী ছাত্রী হলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অসদাচরণের অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার রাতে আন্দোলনে নামেন ওই হলের শিক্ষার্থীরা। রোববার চতুর্থ দিনের মতো তাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকে।

দুপুর আড়াইটার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা আইসিটি ভবনে উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করেন। বিকাল ৫টার দিকে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে।

বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা শুরু হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠিপেটা করে, কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট ও সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

এ সময় শিক্ষার্থী, কর্মকর্তাসহ অন্তত অর্ধশত আহত হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক