ওরাই আমার ছেলে, ওদের নিরাপত্তা চাই: কুলখানিতে আবরারের মা

কুষ্টিয়ায় আবরার ফাহাদের কুলখানি অনুষ্ঠানে দোয়া-মোনাজাত শেষে তার মা রোকেয়া বেগম সব বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজের শিক্ষার্থীদের নিজের ছেলে মনে করে তাদের নিরাপত্তা চেয়েছেন।

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Oct 2019, 05:46 PM
Updated : 11 Oct 2019, 05:46 PM

তিনি বলেন, “আমার ছেলের জন্য সব ছেলে রাজপথে নেমেছে। এখন সব বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজের ওরাই আমার ছেলে। আমি ওদের নিরাপত্তা চাই।

“ওদের ওপর যেন কোনো অত্যাচার না হয়। এক ছেলেকে হারিয়েছি। আর কোনো ছেলেকে হারাতে চাই না। আমি চাই না আমার মত আর কোনো মায়ের বুক খালি হয়।“

জেলার কুমারখালী উপজেলার রায়ডাঙ্গা গ্রামের বাড়িতে শুক্রবার বাদ জুমা এই কুলখানি হয়। এতে তাদের আত্মীয়-স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষী, গ্রামবাসী অংশ নেয়।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে আবরারের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনের সংসদ সদস্য সেলিম আলতাফ জজ। তিনি আবরারের দাদা আব্দুল গফুর, বাবা বরকত উল্লাহ, মা রোকেয়া খাতুনকে সমবেদনা জানান।

দাদা গফুর সংসদ সদস্যকে বলেন, তিনি বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর সেলিম আলতাফ জর্জের দাদা গোলাম কিবরিয়ার সঙ্গে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেছিলেন।

আবরারের পরিবারের ইচ্ছে অনুযায়ী তার স্মৃতি স্মরণে বাড়ির সামনের আধা কিলোমিটার সড়ক পাকাকরাসহ ‘আবরার ফাহাদ সড়ক’ নামকরণের ঘোষণা দেন সেলিম আলতাফ। একই সঙ্গে আরবারের কবর পাকা ও সেখানে সোলার লাইট লাগিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দেন তিনি।

সে সময় আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ সংসদ সদস্যকে বলেন, তার ছোট ছেলে ঢাকা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক বিজ্ঞান বিভাগের একাদশ শ্রেণির ছাত্র আবরার ফায়াজ ঢাকায় যেতে ভয় পাচ্ছে। সে ঢাকায় পড়তে যেতে চাচ্ছে না।

সাংসদ সেলিম তাকে আশ্বস্ত করে বলেন, ফায়াজকে ঢাকায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করে পড়ালেখা সম্পন্ন করার সব ব্যবস্থা করে দেবেন তিনি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক