প্লাস্টিকের ফুল দিয়ে ঘর সাজানোর চেষ্টায় সরকার: গণতন্ত্র মঞ্চ

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকী বলেন, “বাংলাদেশের মানুষ জানে, আপনার দলের লোকেরা আজকে যারা নমিনেশনের জন্য ভিড় করছে…অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হলে, এদের কারো টিকির নাগালও পাওয়া যাবে না।”

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Nov 2023, 11:35 AM
Updated : 23 Nov 2023, 11:35 AM

সরকার ‘বিষাক্ত ফুল’ দিয়ে ভোটের মাঠ সাজিয়ে ‘একতরফা নির্বাচনের’ যে খেলা শুরু করেছে, তা রুখে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে গণতন্ত্র মঞ্চ।

টানা ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচির দ্বিতীয় দিনে বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে গণতন্ত্র মঞ্চের নেতা বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, “আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচনের ফুল নাকি ফুটতে শুরু করেছে। এই ফুল বাগানের ফুল না, এই ফুল প্লাস্টিকের ফুল, ঘরের মধ্যে সাজিয়ে রাখে, যার কোনো গন্ধ নেই, দুর্গন্ধ নেই। সেই ফুল দিয়ে তিনি বাগান সাজানোর চেষ্টা করছেন।”

তিনি বলেন, “আমাদের কথা খুব পরিষ্কার, এসব সমস্ত খেলা বন্ধ করেন, বাংলাদেশের মানুষ ধরে ফেলেছে। এই খেলাটা বন্ধ করেন, না হলে বাংলাদেশের মানুষ এবার একটা আখেরি লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত, জীবনমরণের জন্য প্রস্তুত।”

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকী বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী তিনি একদিন নিজেই বলেছেন, তাকে ছাড়া আওয়ামী লীগের সবাইকে নাকি কেনা যায়। উনি ভেবেছেন, বাংলাদেশের বোধহয় সবদলের সবাইকে কেনা যায়। দল হিসেবে রাজনৈতিক নেতা হিসেবে যখন অপরাপর রাজনৈতিক নেতাদের কেনাবেচার কাজকে গোয়েন্দা সংস্থা দিয়ে তিনি (প্রধানমন্ত্রী) অনুমোদন করেন, রাজনৈতিক নেতা হিসেবে তার যে আর কোনো জায়গা থাকে না…এটা পরিস্কার। তিনি কি আর রাজনৈতিক নেতা আছেন?”

তিনি বলেন, “রাজনৈতিক নেতা কেনাবেচার জন্য গোয়েন্দা সংস্থাকে তিনি নানারকম নির্দেশনা দিচ্ছেন। ভাবছেন, এভাবে কেনাবেচা করে পাইওনিয়ার লীগের দলগুলোকে নিয়ে তারা একটা একতরফা নির্বাচন করবেন.. সেটা নাকি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে। বাংলাদেশের মানুষ বোকা না, বাংলাদেশের মানুষ জানে তাদের পায়ের তলায় মাটি নেই, বাংলাদেশের মানুষ জানে, আপনার দলের লোকেরা আজকে যারা নমিনেশনের জন্য ভিড় করছে…অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হলে, এদের কারো টিকির নাগালও পাওয়া যাবে না।”

সকাল সাড়ে ১১টায় তোপখানা রোড থেকে গণতন্ত্র মঞ্চের মিছিল শুরু হয়ে বিজয়নগর, শিল্পকলা একাডেমি সড়ক হয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়।

গণতন্ত্র মঞ্চের নেতা জেএসডির সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপনের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নাগরিক ঐক্যের শহীদুল্লাহ কায়সার, ভাসানী অনুসারী পরিষদের হাবিবুর রহমান রিজু, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রীতম দাস প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এছাড়া ১২ দলীয় জোটের নওয়াব আলী আব্বাস, রাশেদ প্রধান, আসাদুর রহমান খান আসাদ, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চৌধুরী, বাংলাদেশ গণঅধিকার পরিষদের সভাপতি নুরুল হক নূর এবং অপর অংশের সদস্য সচিব ফারুক হাসানের নেতৃত্বে বিজয়নগর, পুরানা পল্টন, নয়া পল্টনের সড়কে মিছিল করেছে।