চিকিৎসার চেয়ে ‘সরকার পতনের দাবিটাই’ মুখ্য হওয়া দরকার: গয়েশ্বর

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দাবির চেয়ে ‘সরকার পতনের দাবিতে’ আন্দোলনেই বিএনপির বেশি জোর দেওয়া উচিত বলে তিনি মনে করেন।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 Nov 2021, 01:53 PM
Updated : 26 Nov 2021, 01:53 PM

খালেদা জিয়াকে বিদেশ পাঠানোর আন্দোলনে নেতা-কর্মীদের ‘সর্বাত্মক প্রস্তুতি’ নেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য।

শুক্রবার দুপুরে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, “আপনারা যেটা মনে পোষণ করেন, সেটাকে বাস্তবে রূপ দেওয়ার জন্য আপনাদের (নেতা-কর্মী) সার্বক্ষণিক প্রস্তুতি রাখতে হবে। এটা দিনক্ষণ, তিথি-নক্ষত্র দেখে কখনো কোনো বিস্ফোরণ ঘটে না।

“জনগণের আন্দোলন কিন্তু রিমোট কন্ট্রোলে চলে না। আপনি টাইম বোমা দেবেন ওটা টিপ না দিলে ফুটবে না। জনগণের বিস্ফোরনের রিমোট কিন্তু কারো হাতে থাকে না। সেই কারণে বলছি, আপনারা প্রস্তুত থাকেন, আমরাও প্রস্তুত থাকব।”

৭৬ বছর বয়সী বিএনপি চেয়ারপারসন গত ১৩ নভেম্বর থেকে ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হলে সরকারের নির্বাহী আদেশে কারাগারের বাইরে রয়েছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিতে তার পরিবারের পক্ষ থেকে সরকারের কাছে আবেদন করা হয়েছে, তার দলও দাবি তুলেছে। তবে সরকার বলছে, বর্তমান অবস্থায় সেই অনুমতি দেওয়ার আইনি সুযোগ নেই।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে গয়েশ্বর বলেন, “আমাদের এখন একটাই পথ। যিনি বাধা তিনিই সরকার প্রধান। তার পতনের আন্দোলনটা করি। খালেদা জিয়ার ভাগ্যে যা আছে হোক।”

“জনগণের এই আকুতি যদি আল্লাহ আমলে নেয়, আমি বিশ্বাস করি, খালেদা জিয়া জনগণের জন্য বেঁচে থাকবেন। আমার মনে হয়, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দাবির চেয়েও সরকার পতনের দাবিটা আমাদের কাছে মুখ্য হওয়া দরকার।”

সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে সরকারের ‘গড়িমসির’ সমালোচনা করে গয়েশ্বর বলেন, “কী আজব দেশে বসবাস করি। অনেক কিছুর জন্য আন্দোলন হয়, দাবি ওঠে; কিন্তু চিকিৎসার জন্য আন্দোলন করতে হয়! দাবি করতে হয়!

“পৃথিবীর এমন কোনো দৃষ্টান্ত ইতোপূর্বে আছে যে, চিকিৎসার জন্য সরকারের কাছে দাবি করতে হয়? নাই। এখন বুঝতে হবে কী রকম এই সরকার।”

খালেদার চিকিৎসার জন্য সরকারকে বলে আর ‘লাভ নেই’ মন্তব্য করে এই বিএনপি নেতা বলেন, “আমাদের পণ করা দরকার, আমরা যারা সাধারণত বিদেশে চিকিৎসা নিতে অভ্যস্ত, আমাদের প্রতিজ্ঞা নেওয়া দরকার। আমার নেত্রী যদি চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে না পারে, সেই চিকিৎসা না নিতে পারে, আমাদেরও পণ করা উচিত, আমরাও বিদেশে চিকিৎসা নিতে যাব না। এই প্রতিবাদটা আমাদের থাকতে হবে।”

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশে উন্নত চিকিতসার জন্য পাঠানো এবং ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রাজিব আহসানের মুক্তির দাবিতে সম্মিলিত ছাত্র যুব ফোরামের উদ্যোগে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এই আলোচনা সভা হয়।

সংগঠনের আহ্বায়ক নাহিদুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক