‘জননেত্রী পরিষদের’ সেই মনির খানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

কামরাঙ্গীরচর থানায় ইসমাইল হোসেন নামের এক ব্যক্তির করা প্রতারণার মামলায় এই পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

আদালত প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 August 2022, 06:44 PM
Updated : 11 August 2022, 06:44 PM

চাঁদাবাজি ও প্রতারণার এক মামলায় ভুঁইফোড় সংগঠন ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদের’ সভাপতি মনির খান ওরফে দর্জি মনিরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।

ঢাকার মহানগর হাকিম শহিদুল ইসলাম বুধবার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির এই আদেশ দেন বলে আদালত পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন জানান।

তিনি বলেন, “বুধবার মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণের দিন ধার্য ছিল। দর্জি মনির আদালতে হাজির হননি। বিচারক অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন এবং আসামি মনিরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।”

২০২১ সালের ৩ আগস্ট চাঁদাবাজি ও প্রতারণার অভিযোগে কামরাঙ্গীরচর থানায় ইসমাইল হোসেন নামে এক ব্যক্তি মনিরের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

সেখানে বলা হয়, ২০২১ সালের ৩০ জুলাই কামরাঙ্গীরচর থানার মাদবর বাজারের ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডে মনির তার সংগঠনে ‘পদ দেওয়া ও বড় বড় নেতাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক করিয়ে দেওয়ার’ কথা বলে ইসমাইলের কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা চান।

৭ জুলাই এ মামলায় আলাদা দুটি অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কামরাঙ্গীরচর থানার পরিদর্শক মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ছোট একটি দর্জির দোকানে কাজ করতেন মনির। হঠাৎ করে নিজেকে রাজনৈতিক নেতা হিসেবে পরিচয় দিতে শুরু করেন তিনি। পরে নিজের নামের সঙ্গে যোগ করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক পদবি। নিজেকে পরিচয় দিতেন বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের এমডি হিসেবে।

রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির ছবির সঙ্গে নিজের ছবি বসিয়ে নিজেকে ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদে’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে দাবি করতে শুরু করেন মনির। তিনি ও তার সহযোগীরা ঢাকা মহানগরীসহ বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় ‘কমিটি দেওয়ার নাম করে অনেকের কাছ থেকে টাকা নেন’ বলেও অভিযোগ করা হয়েছে এজাহারে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক