শেখ কামালের জন্মদিনে আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা

ওবায়দুল কাদের বলেন, “এই জন্মদিনের আনন্দ হারিয়ে গেছে পঁচাত্তরের রক্তাক্ত বিদায়ের মধ্যে।”

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 August 2022, 09:26 AM
Updated : 5 August 2022, 09:26 AM

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় ছেলে বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে শ্রদ্ধা জানিয়েছে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার ক্ষমতাসীন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেররে নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নেতারা বনানী কবরস্থানে যান।

যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা লীগসহ অন্য সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও পরে শ্রদ্ধা জানান।

শেখ কামালকে এ দেশের তরুণ সমাজের জন্য ‘রোল মডেল’ হিসেবে বর্ণনা করে কাদের বলেন, “এই জন্মদিনের আনন্দ হারিয়ে গেছে পঁচাত্তরের রক্তাক্ত বিদায়ের মধ্যে। আমি মনে করি, বাংলাদেশের তরুণ সমাজের শহীদ শেখ কামালের কাছে অনোক কিছু শেখার আছে। বহুমাত্রিক প্রতিভা, বহুমাত্রিক মেধা।

“ক্রীড়াঙ্গনে, সাংস্কৃতিক অঙ্গনে বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী, বাংলাদেশের তরুণ সমাজের কাছে তিনিই হতে পারেন রোল মডেল।"

এর আগে ধানমণ্ডিতে আবাহনী ক্লাব মাঠ প্রাঙ্গণে শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান দলের নেতা-কর্মীরা। শেখ কামাল ছিলেন আবাহনী ক্রীড়া চক্রের প্রতিষ্ঠাতা।

শেখ কামালের জন্ম ১৯৪৯ সালের ৫ অগাস্ট গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায়, বাবা মায়ের দ্বিতীয় সন্তান তিনি।

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের গুলি করে হত্যা করা হয়। ওই রাতে পরিবারের অন্যদের সঙ্গে নিহত হন ২৬ বছর বয়সী শেখ কামাল।

শেখ কামাল শাহীন স্কুল থেকে মাধ্যমিক এবং ঢাকা কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ থেকে স্নাতক ডিগ্রি নেন।

ছাত্রলীগের একজন কর্মী হিসাবে ১৯৬৯ এর গণঅভ্যুত্থান এবং মুক্তিযুদ্ধ সংগঠনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন শেখ কামাল। তিনি স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম ওয়ার কোর্সে প্রশিক্ষণ নিয়ে মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি জেনারলে আতাউল গণি ওসমানীর এডিসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৭৫ সালের ১৪ জুলাই অ্যাথলেট সুলতানা খুকুর সঙ্গে শেখ কামালের বিয়ে হয়। ১৫ অগাস্ট সুলতানাকেও হত্যা করে ঘাতকরা।

শেখ কামাল ‘ঢাকা থিয়েটার’ এর প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য ছিলেন। ছায়ানটে তিনি সেতার শিখতেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক