শুষ্ক হাতের যত্ন

বেশি সময় পানিতে কাজ করলে বা শীতের সময়ে হাতের ত্বক বেশি শুষ্ক হয়ে যায়।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Jan 2015, 11:44 AM
Updated : 29 Jan 2015, 11:46 AM

তাছাড়া অতিরিক্ত কেমিকলের সংস্পর্শে কাজ করলেও হাতেরত্বক রুক্ষ হয়ে পড়ে।

রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে শুষ্ক হাতের জন্য বিষেশযত্নের কিছু টিপস দেওয়া হয়। এই প্রতিবেদনে সেসব বিষয়গুলো দেওয়া হল।

হাত রাখুন সুরক্ষিত

অতিরিক্ত কেমিকল বা ক্ষারযুক্ত উপাদানের সংস্পর্শে কাজকরার সময় হাতের ক্ষতি হয় সবচেয়ে বেশি। তাই এ ধরনের ক্ষতিকর উপাদান নিয়ে কাজ করারসময় কিছুটা সচেতন হওয়া জরুরি। এক্ষেত্রে হাতের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে সবার আগে।

নিয়মমতোহাত পরিষ্কার করুণ

অনেকেই মনেকরেন পরিষ্কার করলে বা ধুলে হাত আরও বেশি শুষ্ক হয়ে যায়। তবে হাতে নানান ধরনের জীবাণুলেগে থাকে তাই নিয়ম করে হাত পরিষ্কার না করলে ফ্লু, কাশি, জ্বর ইত্যাদি সমস্যা হওয়ারসম্ভাবনা থাকে।

তাই কুসুমগরম পানিতে প্রাকৃতিক ও জীবাণুনাশক তেল সমৃদ্ধ সাবান বা হ্যান্ড ওয়াশ দিয়ে হাত পরিষ্কারকরতে হবে। মাঝে মাঝে হাতের তালু স্ক্রাব করার অভ্যাস করতে হবে।

ক্ষারমুক্তক্লেনজার ব্যবহার

হাত পরিষ্কার করতে ক্ষারবিহীন ক্লেনজার ব্যবহার করতে হবে।এজন্য জীবাণুনাশক, ফোমিং বা অতিরিক্ত সুগন্ধযুক্ত সাবান ব্যবহার এড়িয়ে চলতে হবে।

বেশি ক্ষারযুক্ত সাবানের কারণে হাতের চামড়ার উপরের চর্বিরস্তর নষ্ট হয়ে যায়। যা প্রয়োজনীয় জলীয় উপাদান ধরে রেখে ত্বক কোমল রাখে। তাই হাত পরিষ্কারেরজন্য ক্ষারহীন ক্লেনজার ব্যবহার করতে হবে।

হাতে নিয়মিত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার

ত্বকের শুষ্কভাবদূর করার একমাত্র উপায় নিয়মিত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা। ভালো ময়েশ্চারাইজার মানেইদামী প্রসাধনী, তা কিন্তু নয়। ভলো মানের পেট্রোলিয়াম জেলি, বিশুদ্ধ তেল, গ্লিসারিনত্বকের নমনীয়তা ধরে রাখতে সাহায্য

তাছাড়া অতিরিক্ত পানি ব্যবহার, ক্ষারীয় পদার্থ বা কেমিকলবেশি যেসব সাবানে সেগুলো নিয়ে কাজ করার সময় গ্লাভস বা দস্তানা পরে কাজ করা যেতে পারে।এতে হাতের ত্বক সরাসরি কেমিকলের সংস্পর্শে আসবে না আর ক্ষতিও কম হবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক