পালিয়ে বিয়ে রানি-আদিত্যর, বাড়ির বাইরে ছিলেন এক বছর

‘কফি উইথ করণে’ রানির পালিয়ে বিয়ে করার খবর জানিয়ে করণ বলেছেন, বিদেশে হওয়া ওই অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন মাত্র ১৮ জন।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Dec 2023, 04:29 AM
Updated : 1 Dec 2023, 04:29 AM

সিনেমায় নায়ক-নায়িকাদের লুকিয়ে প্রেম বা পালিয়ে বিয়ে করার মত ঘটনা অনেক সময় ঘটে যায় তারকাদের বাস্তব জীবনেও। বলিউডের তেমনই এক জুটি রানি মুখার্জি ও আদিত্য চোপড়া।

এই অভিনেত্রী এবং নির্মাতা কেবল বাড়িঘর নয়, দেশও ছেড়ে বিদেশে পালিয়ে গিয়ে ছাদনাতলায় বসেছিলেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বলছে, এই খবর ফাঁস করেছেন রানিকে হিন্দি সিনেমায় খ্যাতি এনে দেওয়া নির্মাতা ও প্রযোজক করণ জোহর। ‘কফি উইথ করণে’ রানির পালিয়ে বিয়ে করার খবর জানিয়ে করণ বলেছেন, বিদেশে হওয়া ওই অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন মাত্র ১৮ জন।

‘কফি উইথ করণে’ অতিথি হয়ে এসেছিলেন রানি এবং তার চাচাত বোন অভিনেত্রী কাজল।

বলিউডের নামজাদা পরিচালক-প্রযোজক যশ চোপড়ার ছেলে নির্মাতা আদিত্যকে নিজের সবচেয়ে ‘ভালো’ বন্ধু দাবি করে করণ বলেন, “কোথায় রানি-আদিত্য বিয়ে করেছিলেন এত বছর পরেও সেটা বলতে চাই না। যদি বলেও দিই, ওরা রাগারাগি করবে, আমার এই আচরণ মেনে নেবে না। তবে এটা সত্যি, ওদের বিয়েটা হতই।“

২০১৪ সালে বিয়ে করেন রানি ও আদিত্য। আর তার আগে দীর্ঘসময় ধরে চলছে দুজনের প্রেমপর্ব।

ওই বিয়ের স্মৃতি হাতড়ে করণ বলেন, “আদিত্য এসে আমাকে জানলো, সে আর রানি বিয়ে করছে। তবে মাত্র ১৮ জন আমন্ত্রিত। আর এই বিয়ের খবর যদি বাইরে আসে, আমি বুঝব তুমিই বলেছ। কারণ তুমি ছাড়া আর কেউ মুখ খুলবে না। তখন সংবাদপত্রেরই রাজত্ব চলছিল। আমি একেবারে ভয়ে কাঁটা হয়ে ছিলাম।“

রানি আর আদিত্য প্রেমের সময়ে এক দীপাবলিতে তোলা ছবি এখনও তার কাছে আছে বলে জানান করণ।

মজা করে বলেন, “আদিত্যর ভয় যে আমি নাকি ছবিগুলো সোশাল মিডিয়ায় ছেড়ে দেব। দীপাবলির সময় হলে আদিত্য প্রতিবছর আমাকে হুমকি দেয় যাতে আমি সংযত হয়ে থাকি। ছবিগুলোর কথা আমি ভুলে গেলেও আদিত্যই আমাকে ভুলতে দেয় না।“

করণ বলেন, ২০১৪ সালের সে সময় তার পরিচালিত ‘টু স্টেটস’ সিনেমা মুক্তির দিন মুম্বাইতে না থেকে প্লেনে চেপে দেশ ছাড়তে হয়েছিল। “

“এমনকি মাকেও বলিনি কোথায় কি কাজে যাচ্ছি। সবাই খুব অবাক হয়েছিল এই ভেবে যে কী করে কেউ সিনেমার মুক্তির দিন বিদেশ যেতে পারে,” বলেন করণ।

নব্বইয় দশকের শুরুতে ‘রাজা কি আয়েগি বরাত’ সিনেমা দেখে রানিকে ‘সম্ভাবনাময়’ অভিনেত্রী বলে মনে হয়েছিল আদিত্যর। এরপরে তার এবং শাহরুখের পরামর্শে করণ তার প্রথম সিনেমা ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’তে ‘টিনা’ চরিত্রে রানিকে ঠিক করেন। এর কয়েক বছর পর যশরাজ ব্যানারে কয়েকটি সিনেমা করেন রানি।

রানি যখন যশরাজ প্রোডাকশনের কাজ শুরু করেছিলেন, সে সময়ে প্রেমিকা পায়েল খান্নাকে বিয়ে করে আদিত্য সদ্য বিবাহিত।

প্রথম স্ত্রী থাকা অবস্থাতেই আদিত্য রানির সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন বলে গুঞ্জন আছে। এরপর ২০০৯ সালে আদিত্য ও পায়েলের বিচ্ছেদ হলে রানিকে দায়ী করেন কেউ কেউ।

রানিকে এ কারণে পরের দিকে একেবারেই পছন্দ করতেন না আদিত্যর মা-বাবা পামেলা ও যশ চোপড়া।

তবে ২০১৪ সালে আদিত্য যখন রানিকে বিয়ে করেন, তখন আর যশ চোপড়া আর বেঁচে নেই।

আদিত্য ও রানির পালিয়ে বিয়ে করার ঘটনা শুরুতে তাদের দুই পরিবারের কেউ মেনে নিতে পারেননি বলে জানান করণ। এমনকি ছেলের বউকে ঘরেও তোলেননি পামেলা।  

করণ বলেন,  এ কারণে বিয়ের পর প্রায় একবছর হোটেলে থাকতে হয়েছিল আদিত্য আর রানিকে। অবশেষে মায়ের মন নরম হলে বউ নিয়ে বাড়ি ফিরে যান আদিত্য।