বর্ণবাদের বিতর্ক সামলে টিভিতে গোল্ডেন গ্লোবের প্রত্যাবর্তন

এবারের আসরে স্পিলবার্গের ‘দ্য ফেবলম্যানস’ ও আইরিশ সিনেমা ‘দ্য ব্যানশিস অব ইনইশেইরিন’ সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার জিতেছে।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Jan 2023, 04:32 PM
Updated : 11 Jan 2023, 04:32 PM

বর্ণবাদের বিতর্ক মোকাবেলা করেই এক বছর পর আবারও টেলিভিশনের পর্দায় হাজির বিনোদন জগতে বছরের অন্যতম আলোচিত পুস্কার গোল্ডেন গ্লোব। এবারের আসরে চলচ্চিত্র নির্মাতা স্টিভেন স্পিলবার্গের আত্মজীবনীমূলক সিনেমা ‘দ্য ফেবলম্যানস’ ও আইরিশ সিনেমা ‘দ্য ব্যানশিস অব ইনইশেইরিন’ সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার জিতেছে।

শেতাঙ্গ প্রধান্যের অভিযোগ ওঠায় ২০২২ সালে টেলিভশনে সম্প্রচার করা হয়নি গোল্ডেন গ্লোবের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। সেই অভিযোগ মোকাবেলা করেই যুক্তরাষ্ট্রের এনবিসি নেটওয়ার্কে সরাসরি প্রচার করা হয়েছে এবারের আসর।

সঞ্চালক জেরড কারমাইকেল অনুষ্ঠানের শুরুতেই গত বছরের বিতর্কের কথাটি স্মরণ করিয়ে দেন অভ্যাগতদের। নিজেকে তিনি পরিচয় করিয়ে দেন, ‘যুঝতে থাকা একটি শেতাঙ্গ সংস্থার কৃষ্ণাঙ্গ চেহারা’ হিসেবে।

সিএনএন জানায়, গোল্ডেন গ্লোবের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন দ্য হলিউড ফরেন প্রেস অ্যাসোসিয়েশনে (এইচএফপিএ) বৈচিত্র্যের (ভিন্ন ভিন্ন বর্ণ ও গোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্ব) অভাব এবং এর সদস্যদের নৈতিক স্খলন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের লস এঞ্জেলেস টাইমসে প্রতিবেদন প্রকাশের পর ২০২২ সালে এনবিসি গোল্ডেন গ্লোবের সম্প্রচার বাতিল করে। যে কারণে এবারের আসরটি ভিন্ন মাত্রা পেয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে বেভারলি হিলটন হোটেলে অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্যে কারমাইকেল বলেন, “আমি আপনাদের বলছি, কেন আমি এখানে। আমি এখানে কারণ আমি কালো।”

তার এই রসিকতাপূর্ণ তির্যক মন্তব্যের জবাবে দর্শকসারি থেকে অস্বস্তিযুক্ত হাসি শোনা যায়।

২০২১ সালে লস এঞ্জেলেস টাইমসের প্রতিবেদন প্রকাশের পর জনগণের সমালোচনা আমলে নিয়ে বেশ কিছু সংস্কারমূলক পদক্ষেপ নেয় এইচএফপিএ। আর এরই ধারাবাহিকতায় সতর্কভাবে উৎসবের আয়োজনে ফিরেছে হলিউড এই আশায় যে গোল্ডেন গ্লোব এসব বিতর্ক পেছনে ফেলতে খানিকটা সুবিধা করে দেবে।

সাধারণত বছরের শুরুর এই পুরস্কারের আসরটিকে অস্কার জয়ের প্রতিদ্বন্দ্বিতা শুরুর মঞ্চ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। আগামী ২৪ জানুয়ারি অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের জন্য মনোনয়ন প্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ করা হবে। সেই বিবেচনায়, এবারের আসরে গোল্ডেন গ্লোব জয়ী দুটি সিনেমাই বক্স অফিসে তেমন সাড়া ফেলতে ব্যর্থ হয়েছে।

বরং ধারণা করা হচ্ছে অস্কারের দৌড়ে এগিয়ে আছে জনপ্রিয় সিনেমাগুলো- যেমন ‘অ্যাভাটার: দ্য ওয়ে অব ওয়াটার’ ও ‘টপ গান: ম্যাভরিক’। অস্কারের কাছাকাছি সময়ে গোল্ডেন গ্লোবের পুরস্কার ঘোষণা হওয়ার কারণে স্বাভাবিকভাবেই এই আসরের প্রতি বিশেষ নজর থাকে যে কোন সিনেমাগুলো ও শিল্পীরা পুরস্কার জিতেছেন।

অবশ্য গ্লোবের আসর একদিক থেকে অনন্য, সেটা হলো এর আয়োজকেরা সেরা চলচ্চিত্র পুরস্কার দুটি সিনেমাকে দিয়েছেন। আর সেজন্যই ‘দ্য ফেবলম্যানস’র জন্য স্পিলবার্গ এবং ‘বানশিস অব ইনইশেরিনে’র জন্য এর রচয়িতা মার্টিন ম্যাকডোনাহ ও তারকা কলিন ফ্যারেলও পুরস্কার জিতেছেন।

Also Read: গোল্ডেন গ্লোবে সেরা গান ‘আরআরআর’ সিনেমার ‘নাটু নাটু’

সঞ্চালক কারমাইকেল ‘শুধু অনুষ্ঠান সঞ্চালনার জন্য অর্থ নিয়েছেন’ এমন কথা বলে হাস্যরস সৃষ্টি করলেও সমাপনী বক্তব্যে বলেন, তিনি এবারের আসরটি সঞ্চালনার দায়িত্ব নিয়েছেন কারণ এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিনোদন জগতের সদস্যদের সঙ্গে উৎসবটি উদযাপন করতে চেয়েছিলেন, যাদের অনুরক্ত তিনি।

বর্ণবাদের বিতর্কটি যে আমলে নেওয়া হয়েছে, তার একটি প্রকাশ দেখা যায় পুরস্কার বিতরণীতেও। এবারের আসরের শুরুর সাতটি পুরস্কারের পাঁচটিই দেওয়া হয়েছে অশ্বেতাঙ্গ শিল্পীদের। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন সাই-ফাই কমেডি ‘এভরিথিং এভরিহোয়ার অল অ্যাট ওয়ানসে’র জন্য মিশেল ইয়ো এবং ‘ব্ল্যাক প্যানথার: ওয়াকানডা ফরএভারে’র জন্য অ্যানজেলা ব্যাসে।

দীর্ঘ বিরতির পর অভিনয়ে আবার ফেরার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য স্পিলবার্গের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন কুয়ান, যাকে শিশু শিল্পী হিসেবে ‘ইনডিয়ানা জোনস অ্যান্ড দ্য টেম্পল অব ডুমে’ নিয়েছিলেন স্পিলবার্গ।

এবিসি নেটওয়ার্কে প্রচারিত সিটকম ‘অ্যাবোট এলেমেন্টারি’র জন্য সেরা কমেডির পুরস্কার জিতেছেন কুইনটা ব্রুনসন ও টাইলার জেমস উইলিয়ামস। ড্রামা বিভাগে এইচবিওতে প্রচারিত ‘ইউফোরিয়া’র জন্য পুরস্কার জিতেছেন জেনডায়া।

সিএনএন লিখেছে, এবারের অনুষ্ঠানটি আয়োজনের বিচারে কিছুটা আগোছালো ছিল। চোখে পড়েছে শেষ মুহূর্তের তাড়াহুড়োর বিষয়টি এবং নির্ধারিত তিন ঘণ্টার সীমা পেরিয়ে আরও ২০ মিনিট অতিরিক্ত সময় চলেছে এবারের আসর। এজন্য অবশ্য বিজয়ীদের ধন্যবাদ বক্তব্য ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশে অতিরিক্ত সময় নেওয়ার বিষয়টিও দায়ী।

গোল্ডেন গ্লোবের আয়োজক সংগঠন, আন্তর্জাতিক সাংবাদিকদের নিয়ে গঠিত এইচএফপিএ ঐতিহ্যগতভাবে ইউরোপীয় মেধাকেই বেশি মূল্যায়ন করে এসেছে। অবশ্য এবারের আসরে এর ব্যতিক্রম চোখে পড়েছে। তারপরেও ‘ব্যানশিসে’র জন্য ফ্যারেল, ও ‘তার’ সিনেমার জন্য কেইট ব্ল্যানচেট পুরস্কার জিতেছেন। ‘এলভিসে’ অভিনয়ের স্বীকৃতি পেয়েছেন অস্টিন বাটলার।

অ্যানিমেশন সিনেমায় এবার ডিজনিকে পেছনে ফেলেছে নেটফ্লিক্স। এবারের গোল্ডেন গ্লোবে এই বিভাগে সেরা নির্বাচিত হয়েছে ‘গুইলারমো দেল তোরো’স পিনোকিও’।

টেলিভিশন বিভাগে এইচবিও সেরা ধারাবাহিক ও সেরা সংক্ষিপ্ত ধারাবাহিকের পুরস্কারসহ চারটি পুরস্কার জিতেছে। এবিসি জিতেছে তিনটি এবং নেটফ্লিক্স, অ্যাপল টিভি প্লাস, হুলু ও প্যারামাউন্ট নেটওয়ার্ক একটি করে পুরস্কার পেয়েছে।

এছাড়া এই আসরে সিসিল বি ডেমিলি পুরস্কার গ্রহণ করেছেন এডি মারফি। ‘গ্লি’ ও ‘আমেরিকান হরর স্টোরি’র জন্য প্রযোজক রায়ান মারফিকে ক্যারিয়ার অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়েছে। আসরের আরেকটি উল্লেখযোগ্য ঘটনা ছিলো ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির জেলেনস্কির রেকর্ড করা ভাষণ সম্প্রচার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক