হিন্দি সিনেমার প্রদর্শন ঠেকাতে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট 

বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে হিন্দি সিনেমা ‘ওয়ান্টেড’ মুক্তি পাওয়া কথা রয়েছে শুক্রবার। এর প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট ডেকেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ঐক্যজোট। এর ফলে বিএফডিসির ভেতরে ও বাইরে চলচ্চিত্র বিষয়ক সমস্ত কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Jan 2015, 02:46 PM
Updated : 22 Jan 2015, 03:07 PM

একই সঙ্গে ভারতীয় সিনেমা আমদানি ও প্রদর্শনীর বিরুদ্ধে সরকারি বিধিনিষেধের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জরুরী সভা শেষে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ঐক্যজোট নেতা ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পরিচালক আহমেদ আলী মন্ডল।

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরে চলচ্চিত্র ঐক্যজোট নেতারা ভারতীয় চলচ্চিত্র আমদানি ও প্রদর্শনীর বিরুদ্ধে নিজেদের অবস্থান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্মারকলিপি পেশ করেন। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান এই স্মারকলিপি গ্রহণ করেন।

মন্ডল বলছেন, “ভারতের সিনেমা ‘ওয়ান্টেড’ মুক্তির প্রতিবাদে আমরা সিনেমা সংশ্লিষ্ট সব ধরনের কার্যক্রম স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে আমাদের দাবিদাওয়া সম্বলিত একটি স্মারকলিপি প্রদান করেছি। আমরা এখন প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়। যতদিন পর্যন্ত আমরা এ আন্দোলনের সুফল পাচ্ছি, ততদিন অবধি আমাদের ধর্মঘট চলবে।”

মন্ডল আরও জানান, শুক্রবার সকাল নয়টায় চলচ্চিত্র ঐক্যজোটের আহ্ববানে শাকিব, মৌসুমী, অমিত হাসানসহ চলচ্চিত্রাঙ্গনের তারকারা কলাকুশলীদের নিয়ে বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে যাবেন।

‘ওয়ান্টেড’ মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলগুলোতে গিয়ে তারা দর্শকদের অনুরোধ করবেন যেন তারা হিন্দি সিনেমা বর্জন করেন।

সম্প্রতি ইনউইন এন্টারপ্রাইজ ভারত থেকে আমদানি করা চারটি হিন্দি ভাষার সিনেমা ‘ওয়ান্টেড’, ‘ডন-টু’, ‘তারে জামিন পার’, ‘থ্রি ইডিয়টস’ আমদানি করলে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিসহ চলচ্চিত্রাঙ্গনের বিভিন্ন সংগঠন প্রতিবাদমুখর হয়ে ওঠে। ইনউইন ‘ওয়ান্টেড’ সিনেমাটি দেশের ৮০টি হলে মুক্তির কথা জানালে গঠিত হয় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ঐক্যজোট।

মঙ্গলবার বিএফডিসিতে এক সংবাদ সম্মেলনে ঐক্যজোট নেতারা ঘোষণা দেন, যে কোনো মূল্যে তারা হিন্দি সিনেমার প্রদর্শন বন্ধ করবেন। এদিকে ইনউইন এন্টারপ্রাইজের কর্ণধার নওশাদ জানিয়েছেন, সাফটা চুক্তি মেনে এবং তথ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় তারা সিনেমা চারটি আমদানি ও সেন্সর করিয়েছেন। সুতরাং ‘ওয়ান্টেড’ মুক্তির ব্যাপারে কোনো ‘আইনগত বাধা’ নেই।

এদিকে ঐক্যজোটের তরফ থেকে আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূইয়া শুক্রবারের মধ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে ‘ওয়ান্টেড’ প্রদর্শনের অনুমতি না দেওয়ার জন্য মন্ত্রী পরিষদ সচিব, সংস্কৃতিমন্ত্রী ও সংস্কৃতি সচিব, তথ্য সচিব, সেন্সর বোর্ড চেয়ারম্যান, ঢাকার জেলা প্রশাসক, পুলিশের আইজিকে একটি আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন।

এদিকে হিন্দি সিনেমা প্রদর্শন ও আমদানির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে শনিবার জরুরী সভা আহ্বান করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিবেশক সমিতি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক