‘সুবাস ছড়িয়ে’ ছাপ্পান্নতেই চলে গেলেন আহমেদ রুবেল

বসুন্ধরায় স্টার সিনেপ্লেক্সে 'পেয়ারার সুবাস' এর প্রিমিয়ার শোয়ে যাওয়ার পথে অসুস্থ হয়ে পড়েন রুবেল।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Feb 2024, 01:27 PM
Updated : 7 Feb 2024, 01:27 PM

আর মাত্র দুদিন পর দেশের হলে হলে মুক্তি পাবে নুরুল আলম আতিকের নতুন সিনেমা 'পেয়ারার সুবাস'; কিন্তু সিনেমার প্রিমিয়ার শোর দিনই চলে গেলেন এ সিনেমার অভিনেতা আহমেদ রুবেল।

মঞ্চ, টেলিভিশন আর চলচ্চিত্রের আলোচিত এ অভিনেতা চিরবিদায় নিলেন ৫৬ বছর বয়সেই। তার মৃত্যুর খবর গ্লিটজকে নিশ্চিত করেছেন 'পেয়ারার সুবাস' সিনেমার প্রধান সহকারী পরিচালক শ্যামল শিশির।

তিনি বলেন, বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরায় স্টার সিনেপ্লেক্সে, 'পেয়ারার সুবাস' এর প্রিমিয়ার শোয়ে অংশ নিতে যান রুবেল। কিন্তু অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছানোর আগেই হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন।

“আতিক ভাই আর রুবেল ভাই একসঙ্গেই আসছিলেন। বসুন্ধরা সিটির বেজমেন্টে গাড়ি রেখে প্রিমিয়ার অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা ছিল তাদের। কিন্তু গাড়ি থেকে নামার পর রুবেল ভাই হুট করে বেজমেন্টে ফ্লোরে পড়ে যান।

“তখন আতিক ভাই আমাকে ফোন করে জানান। আমি দুজন ছেলেকে পাঠাই সেখানে। এরপর রুবেল ভাইকে স্কয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।"

১৯৬৮ সালের ৩ মে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের রাজারামপুর গ্রামে জন্ম নেওয়া আহমেদ রুবেল বেড়ে উঠেছেন ঢাকায়। অভিনয়ের সঙ্গে তার সখ্য মঞ্চ দিয়ে।

সেলিম আল দীনের 'ঢাকা থিয়েটারে' যোগ দেওয়ার পর ‘হাতহদাই’ নাটকে প্রথম অভিনয় করেন রুবেল। তাকে প্রথম টিভি নাটকে পাওয়া যায় একুশে টেলিভিশনের পর্দায় গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘স্বপ্নযাত্রা’য়। তারপর হুমায়ূন আহমেদের ঈদনাটক 'পোকা'য় অভিনয় করেন রুবেল, তৈরি হয় তার আলাদা ধরনের জনপ্রিয়তা।

হুমায়ূন আহমেদের ‘অতিথি', 'নীল তোয়ালে', 'বিশেষ ঘোষণা', 'সবাই গেছে বনে', ' বৃক্ষমানব', 'যমুনার জল দেখতে কালো' নাটকে রুবেলের অভিনয় প্রশংসিত হয়। মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখা ধারাবাহিক 'প্রেত' নাটকটি রুবেলকে দেয় অন্যরকম জনপ্রিয়তা।

এক পর্বের এবং ধারাবাহিক নাটকের মধ্যে  'বারোটা বাজার আগে', 'প্রতিদান', 'নবাব গুন্ডা',  'এফএনএফ', 'একান্নবর্তী', 'রঙের মানুষ, 'পাথর', 'অতল', 'চেয়ার', 'স্বর্ণকলস', 'আয়েশার ইতিকথা', 'দূরের বাড়ি কাছের মানুষ', সৈয়দ বাড়ির বউ'সহ আরও অনেক নাটকে অভিনয় করেছেন রুবেল।

চলচ্চিত্রে রুবেলের যাত্রা শুরু ১৯৯৪ সালে, বাণিজ্যিক ধারার 'আখেরি হামলা' সিনেমা দিয়ে। এ পর্যন্ত 'আজকের ফায়সালা', 'মুক্তির সংগ্রাম', 'রঙিন রংবাজ', 'কে অপরাধী', 'সাবাস বাঙালি', 'মেঘলা আকাশ', 'পৌষ মাসের পিরিত'সহ  ১৯টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন রুবেল।

তবে চলচ্চিত্রে রুবেলকে জনপ্রিয়তা ও পুরস্কার এনে দিয়েছে হুমায়ূনের 'চন্দ্রকথা', 'শ্যামল ছায়া'।

এছাড়া 'ব্যাচেলর', মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা 'গেরিলা', 'দ্য লাস্ট ঠাকুর', 'অলাতচক্র', 'লাল মোরগের ঝুঁটি' ও রুবেলের মুক্তি পাওয়া সর্বশেষ সিনেমা 'চিরঞ্জীব মুজিব' তাকে একজন দারুণ অভিনেতা হিসেবে বারবার তুলে ধরেছে।

কলকাতার সিনেমাতেও রুবেল কাজ করেছেন। ২০১৪ সালে ভারতের নির্মাতা সঞ্জয় নাগ পরিচালিত 'পারাপার' এ প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি।

রুবেল সরব হয়েছিলেন হালের ওটিটিতেও। সত্যজিৎ রায়ের কালজয়ী গোয়েন্দা চরিত্র 'ফেলুদা' হিসেবেও তাকে পাওয়া গেছে। 'নয়ন রহস্য' উপন্যাস অবলম্বনে তৌকির আহমেদ পরিচালিত ওয়েব সিনেমায় 'ফেলুদা' হয়েছিলেন রুবেল। এছাড়া 'কাইজার' সিরিজেও তাকে দেখা যায়।

এসব সিনেমার মধ্যে রুবেল 'চিরঞ্জীব মুজিব'কে বিশেষ বলে তুলে ধরেছিলেন। ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর মুক্তি পায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের 'অসমাপ্ত আত্মজীবনী' অবলম্বনে নির্মিত পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র 'চিরঞ্জীব মুজিব'।

এ সিনেমায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের তরুণ বয়সের চরিত্রে অভিনয় করেন রুবেল। গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রুবেল বলেছিলেন, বঙ্গবন্ধু হয়ে ওঠার কাজটি ছিল তার কাছে দুঃসাধ্য। তবুও বঙ্গবন্ধুর কথা বলার ধরন, হাঁটাচলা, সিগারেট ধরানোর স্টাইলসহ সবকিছু অনুকরণ করে ঐতিহাসিক এ চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে আপ্রাণ চেষ্টা করেন তিনি।

শেষ কাজ 'পেয়ারার সুবাস' নিয়ে দারুণ আশাবাদী ছিলেন রুবেল। শুক্রবার মুক্তি পেতে চলা এই সিনেমাটির ট্রেইলার প্রকাশ হয়েছে মঙ্গলবার।

সিনেমার শুটিং শুরু হয়েছিল ২০১৬ সালে। কাজ শুরুর পর দফায় দফায় বিরতি দিয়ে সেই শুটিং শেষ হয় কোভিড মহামারীর মধ্যে ২০২০ সালের শেষ দিকে। এরপর বাদবাকি কাজ সারতে লেগে যায় আরো তিন বছর।

এ সিনেমায় মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান, আর আহমেদ রুবেলের চরিত্রও গুরুত্বপূর্ণ। গত বছর ৪৫তম মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে 'পেয়ারার সুবাস' এর প্রিমিয়ার হয়।

শ্যামল শিশির জানান, আহমেদ রুবেলের মরদেহ রাতে রাখা হবে হিমঘরে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় কফিন নেওয়া হবে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে।

দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত সর্বস্তরের মানুষ তাকে শ্রদ্ধা জানাবেন। এরপর গাজীপুরে নিয়ে যাওয়া হবে মরদেহ, সেখানেই বাদ আছর দাফন হবে এই অভিনেতার।