নাটক-সিনেমা-তথ্যচিত্রে রানি কাহিনী

অনেক চলচ্চিত্রে রানি উপস্থিত হয়েছেন ব্রিটিশ সাংস্কৃতিক আইকন হিসেবে।তার জীবনের নানা অধ্যায় নিয়ে নামকরা সব পরিচালকরা সাজিয়েছেন সিনেমার কাহিনী।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Sept 2022, 10:06 AM
Updated : 9 Sept 2022, 10:06 AM

মাত্র ২৫ বছর বয়সে ব্রিটিশ সিংহাসনে আসীন হওয়ার পর প্রায় ৭০ বছর রাজকার্য পরিচালনার অনন্য নজির গড়ে গেছেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ, এই পুরো সময়টায় নানাভাবে তার চরিত্রটি আবির্ভূত হয়েছে তথ্যচিত্র, নাটক ও সিনেমায়।

বিশেষ করে গত কয়েক বছরে ব্রিটিশ টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে রানি উপস্থিত হয়েছেন সাংস্কৃতিক ‘আইকন’ হিসেবে। তার জীবনের নানা অধ্যায় নিয়ে নামকরা সব পরিচালকরা সাজিয়েছেন নানা গল্প।

রানির জীবনাবসানের পর তাকে ঘিরে তৈরি করা বিভিন্ন তথ্যচিত্র, সিনেমা ও নাটকের তথ্য নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে নিউ ইয়র্ক টাইমস, ভ্যারাইটি, ডেজার্ট নিউজসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

‘এলিজাবেথ: এ পোর্ট্রেট ইন পার্টস’

এই ডুকেমন্টারি জুড়ে সম্পূর্ণ নিজস্ব রূপে বিরাজমান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। সেই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর রাজদণ্ড হাতে নেওয়া তরুণ এলিজাবেথ থেকে শুরু করে ৭০ বছরে রানির বিভিন্ন সময়ের চিত্র উঠে এসেছে চলতি বছর নির্মিত এই তথ্যটিত্রে।

‘রয়্যাল ফ্যামিলি’

বিবিসির এই তথ্যচিত্রটি জন্ম দেয় কিছু বিতর্কের। ৩৭ মিলিয়ন দর্শক ‘রয়্যাল ফ্যামিলি’ দেখার পর এর সম্প্রচার বন্ধের নির্দেশ দেন রানি। ৯০ মিনিটের ওই তথ্যচিত্রে রাজপরিবারের দৈনন্দিন জীবনের আচার অভ্যাস তুলে ধরা হয়েছে। তথ্যচিত্রটি এখন ইউটিউবে পাওয়া যাচ্ছে।

‘দ্য কিংস স্পিচ’

যদিও এই সিনেমার কাহিনী আবর্তিত হয়েছে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের বাবা রাজা ষষ্ঠ জর্জকে ঘিরে, তবু সিনেমায় এসেছেন রানি। এলিজাবেথের ভূমিকায় অভিনয় করেছের ফ্রেয়া উইলসন। এ সিনেমায় কলিন ফার্থ অভিনয় করেন রাজা ষষ্ঠ জর্জের ভূমিকায়। হবু রাজার ‘তোতলানোর’ সমস্যা এবং তা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা উঠে এসেছে এ সিনেমায়।

টম হুপার পরিচালিত ব্রিটিশ রাজকাহিনীর এই সিনেমা ২০১০ সালে অস্কার জিতে নেয়। এছাড়া মোট ২০৬টি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয় সিনেমাটি।

‘দ্য অডিয়েন্স’

এই নাটকে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের চরিত্রটি করেছেন হেলেন মিরেন। প্রধানমন্ত্রীদের সঙ্গে রানির বৈঠকের নানা ঘটনা নিয়ে এর গল্প। ‘দ্য অডিয়েন্স’ ওয়েস্ট এন্ড থিয়েটার এবং ব্রডওয়েতেও মঞ্চস্থ হয়েছে।

‘উলিয়াম অ্যান্ড ক্যাথরিন: এ রয়্যাল রোমান্স’

এ সিনেমায় রানির চরিত্রটি করেছিলেন জেন আলেকজান্ডার, যেখানে প্রিন্স চালর্স ও ডায়নার বড় ছেলে প্রিন্স উইলিয়ামের সঙ্গে কেট মিডলটনের প্রেমগাথা তুলে ধরা হয়েছে। দেখানো হয়েছে তাদের কলেজ জীবনের বন্ধুত্ব এবং কীভাবে তারা দাম্পত্য জীবনে প্রবেশের জন্য রানির আশীর্বাদ পেয়েছিলেন।

‘দ্য কুইন’স কোর্গি’

এনিমেটেড এই সিনেমাটি মুক্তি পায় ২০১৯ সালে। এ সিনেমায় রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের চরিত্রটি দেখানো হয়েছে। সিনেমায় কণ্ঠ দিয়েছেন মারি ডেভন। একটি কুকুরের ব্রিটিশ রাজপ্রাসাদে হারিয়ে যাওয়ার গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে এ সিনেমা।

‘দ্য কুইন’

এই সিনেমাও রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে নিয়ে নির্মিত। ২০০৭ সালে রানির চরিত্রে অভিনয় করে সেরা অভিনেত্রীর অস্কার জিতে নেন হেলেন মিরেন। সিনেমায় দেখানো হয়, রাজবধূ প্রিন্সেস ডায়ানার মৃত্যুর ঘটনা কীভাবে রানির জীবনকেও আলোড়িত করে।

‘দ্য ক্রাউন’

‘দ্য ক্রাউন’ সিরিজটি স্ট্রিমিং সার্ভিস নেটফ্লিক্সে মুক্তি পায় ২০১৬ সালে, যা প্রচারিত হয়েছে কয়েকটি সিজনে। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের জীবন কাহিনী ও রাজত্ব তুলে ধরা হয়েছে এখানে। প্রথম সিজনে নজরকাড়া অভিনয় করেন ক্লেয়ার ফয়। রানির স্বামী প্রিন্স ফিলিপের চরিত্রে দেখা যায় ম্যাট স্মিথকে। পরে দ্বিতীয় এলিজাবেথের চরিত্রে আসেন অলিভিয়া কোলম্যান এবং ইমেন্ডা স্টনপন। সব সিজনেই কাহিনী লিখেছেন পিটর মরগ্যান। এই সিরিজের শুটিং হয়েছে যুক্তরাজ্যে।

২০২১ সালে এমি পুরস্কার জিতে নেওয়া ‘দ্য ক্রাউন’ সিরিজে ব্রিটিশ রাজ পরিবারের রীতিনীতি, আচার-আচরণ, রাজকীয় জীবনব্যবস্থা, হালচাল এবং ঐতিহ্য পর্দায় তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন এর লেখক ও নির্মাতা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক