গণঅর্থায়নের সিনেমা ‘আদিম’ যাচ্ছে মস্কো

সাধারণ মানুষের কাছে শেয়ার বিক্রি করে এই সিনেমার টাকা তুলেছেন নির্মাতা যুবরাজ শামীম।

গ্লিটজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 August 2022, 04:21 PM
Updated : 15 August 2022, 04:21 PM

ব্যতিক্রমী এক পথে নির্মিত সিনেমা ‘আদিম’ মস্কো চলচ্চিত্র উৎসবে যাচ্ছে।

সিনেমা যেভাবে নির্মিত হয়, সেভাবে আদিমের জন্য প্রযোজক খোঁজেননি যুবরাজ শামীম; তিনি দ্বারস্ত হয়েছিলেন সাধারণ মানুষের।

গণ অর্থায়নের এই উদ্যোগে প্রতি ইউনিট শেয়ার পাঁচ হাজার টাকা ধরে সিনেমার শেয়ার বিক্রির মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহ করা হয়েছিল। আর তা দিয়েই নির্মাণের পুরো খরচ উঠে আসে।

যুবরাজ শামীমের সেই উদ্যোগের ফসল পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র আদিম মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে অফিসিয়াল বিভাগে প্রদর্শনের জন্য মনোনীত হয়েছে।

নির্মাতা যুবরাজ শামীম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আদিম চলচ্চিত্রটিতে কোনো পেশাদার অভিনেতা-অভিনেত্রী নেই। সবাই যে যার নিজের চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

নির্মাতা চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করতে টঙ্গীর ব্যাংক মাঠ বস্তিতে টানা সাত মাস স্থায়ীভাবে বসবাস করেন। সেখানে থেকেই তিনি স্থায়ী বাসিন্দাদের রিহার্সাল করিয়ে চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করান। এ সময় তিনি নানা প্রতিকূলতার সম্মুখীন হন। কখনও পুলিশ তাকে মাদকসেবী হিসেবে গ্রেপ্তার করে। কখনও স্থানীয় মাদক কারবারিরা তাকে সাংবাদিক মনে করে বিভিন্ন রকম জটিলতার মুখে ফেলে। কিছু মানুষ অসহযোগিতা করলেও বেশিরভাগ মানুষের আন্তরিক সহযোগিতায় শেষমেশ এ বছর নির্মাতা চলচ্চিত্রটির কাজ শেষ করেন।

যুবরাজ শামীমের নিজস্ব প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রসায়নের ব্যানারে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্রটি। আদিমের সহপ্রযোজক হিসেবে সিনেমাকার ও লোটাস ফিল্ম যুক্ত আছে।

মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিতে যুবরাজ শামীম চলচ্চিত্রটির নির্বাহী প্রযোজক মোহাম্মদ নূরুজ্জামানকে নিয়ে আগামী ২৭ অগাস্ট মস্কো রওনা হবেন। ৩০ আগস্ট মস্কোতে আদিমের ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হবে।

আদিম নিয়ে পরিচালকের প্রত্যাশার কথা জানতে চাইলে যুবরাজ বলেন, “সব পরিচালকেরই স্বপ্ন থাকে সিনেমাটা মানুষের সামনে আসুক। মানুষ সিনেমাটা দেখুক। আমারও প্রত্যাশা আদিম দেশের মানুষ দেখুক।”

দেশে কবে নাগাদ মুক্তি পাবে আদিম- প্রশ্নে তিনি বললেন, “কবে মুক্তি পাবে তা বলা মুশকিল। দেশে সিনেমা মুক্তি দিতে চাইলে প্রযোজক সমিতির সদস্য হতে হয়। সেন্সর সার্টিফিকেট নিতে হয়। আমাদের মতো স্বাধীন নির্মাতার জন্য সমিতির সদস্য হওয়া কষ্টকর দীর্ঘ এক প্রসেস। সব ঠিক থাকলে এ বছরের শেষের দিকে কিংবা আগামী বছরের শুরুতে মুক্তি দিতে চাই।”

কোনো কারণে হলে মুক্তি দিতে না পারলে ওটিটিতে আদিম মুক্তি পাবে বলে জানান এ নির্মাতা।

মস্কো উৎসবে মনোনয়ন প্রসঙ্গে যুবরাজ শামীম বলেন, “কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নিয়মিত পৃথিবীর বড় বড় ফেস্টিভালে যাচ্ছে, এটা এখন আমার কাছে খুব স্বাভাবিক ঘটনাই মনে হয়। তবে টঙ্গীর বস্তির সাদামাটাভাবে শুট করা একটা গল্প মস্কোর সবচেয়ে জাঁকজমকপূর্ণ সিনেমা থিয়েটারে প্রদর্শিত হবে, এই ভাবনাটাই ভালো লাগার। যারা নানাভাবে আদিমের সঙ্গে যুক্ত আছেন সবার প্রতি কৃতজ্ঞ।”

মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের পাশাপাশি আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর ইতালির রিলিজিয়ন টুডে ফিল্ম ফেস্টিভালে আদিমের ইতালিয়ান প্রিমিয়ার হবে। সেখান থেকেও যুবরাজ শামীম উৎসবে যোগদানের আমন্ত্রণ পেয়েছেন বলে জানান।

আদিমের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাদশা, দুলাল, সোহাগী, সাদেক। চিত্রগ্রহণে ছিলেন আমির হামযা। সাউন্ড ও কালার করেছেন সুজন মাহমুদ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক