‘শনিবার বিকেল’ নিয়ে আদালতে যাবেন ফারুকী

সাড়ে তিন বছর ধরে সেন্সর বোর্ডে আটকে আছি শনিবার বিকেল।

গ্লিটজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 August 2022, 04:44 PM
Updated : 17 August 2022, 04:49 PM

সেন্সর বোর্ডের আচরণে ‘বিরক্ত’ মোস্তফা সরয়ার ফারুকী ঘোষণা দিলেন আদালতে যাওয়ার। উদ্দেশ্য, তার নির্মিত সিনেমাটিকে ‘মুক্ত’ করার।

হলি আর্টিজান বেকারিতে ঝড় তোলা জঙ্গি হামলার প্রেক্ষাপটে ‘শনিবার বিকেল’ সিনেমাটি বানিয়েছেন জনপ্রিয় নির্মাতা ফারুকী।

বিদেশে সিনেমাটির প্রদর্শনী হলেও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র না মেলায় এখনও দেশের দর্শক সিনেমাটি দেখার সুযোগ পাননি।

কোনো এক ‘অদৃশ্য কারণে’ সাড়ে তিন বছর ধরে সেন্সর বোর্ডে সিনেমাটি আটকে আছে বলে মনে করছেন ফারুকী।

তিনি বুধবার এক ফেইসবুক পোস্টে লিখেছেন, “আজকে সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান শনিবার বিকেল ছবিটা দেখলেন। আমরা আশা করব, চলচ্চিত্রের উন্নয়ন ও বিকাশের স্বার্থে উনারা দ্রুতই সেন্সর সার্টিফিকেট প্রদান করবেন।”

ফারুকী লিখেছেন, “শনিবার বিকেল ছবিটা পৃথিবীর বিভিন্ন মহাদেশে দেখানো হলেও বাংলাদেশি অডিয়েন্স সেসব জায়গায় খুব বেশি ছিলো না। ইফসা টরন্টোর শো-তে একটা বড় বাংলাদেশি দর্শক ছিলো। ছবি শেষে তাদের উচ্ছ্বাসের পাশাপাশি বিস্ময়সূচক প্রশ্ন ছিল- কেন ছবিটাকে সেন্সর দেওয়া হচ্ছে না? আমি এর উত্তরে কিছু বলি নাই। কারণ এর উত্তর আমি জানি না। আমি ওই দর্শকদের মতোই বিরক্ত বোর্ডের আচরণে।”

সেন্সর বোর্ডকে সাতদিন সময় দিয়েছিলেন ফারুকী, সে সময়সীমা আগামী রোববার শেষ হবে।

ফারুকী লিখেছেন, “যাই হোক আমরা সাত দিন সময় দিয়ে চিঠি দিয়েছি সার্টিফিকেট ইস্যু করার জন্য। ২১ তারিখে সাতদিন শেষ হবে। তারপর আমরা আইনের পথে হাঁটবো।

“এবং পাশাপাশি সিনেমা বা যে কোনো সৃজনশীল কাজের উপর থেকে সকল প্রকার অন্যায় নিয়ন্ত্রণ তুলে নেওয়ার জন্য আমাদের ভয়েস রেইজ করব। ফ্রিডম অব এক্সপ্রেশন ইজ ফান্ডামেন্টাল অ্যান্ড নন নেগোশিয়েবল।”

বাংলাদেশ-ভারত-জার্মান এই তিন দেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে ‘শনিবার বিকেল’। বাংলা ভাষা ছাড়াও ইংরেজি ভাষাতেও হয়েছে ডাবিং। টানা ১৫ দিন মহড়ায় মাত্র ৭ দিনেই শেষ হয়েছে ছবির শুটিং। ‘শনিবারের বিকেল’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান, পরমব্রত, তিশা, ইরেশ যাকের এবং ফিলিস্তিনি অভিনেতা ইয়াদ হুরানি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক