জন্মাষ্টমী উপলক্ষে চট্টগ্রামে পাঁচদিনের কর্মসূচি

মহাশোভাযাত্রা, ধর্ম মহাসম্মেলন, মাতৃ সম্মেলন, পূজা এবং নামসংকীর্তন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে ‘শ্রী শ্রী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ’।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 August 2022, 05:48 PM
Updated : 13 August 2022, 05:48 PM

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শ্রীকৃঞ্চের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে মহানগরীতে শোভাযাত্রা এবং নামসংকীর্তনসহ পাঁচদিনের কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।

আগামী বৃহস্পতি থেকে সোমবার পর্যন্ত নগরীর জেএম সেন হলে এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে ‘শ্রী শ্রী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ’।

শনিবার চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে সংবাদ সম্মেলনে পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি সুকুমার চৌধুরী জানান, ওই পাঁচদিন মহাশোভাযাত্রা, ধর্ম মহাসম্মেলন, মাতৃ সম্মেলন, পূজা এবং নামসংকীর্তন অনুষ্ঠিত হবে।

প্রথমদিন বৃহস্পতিবার বিকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভার্চুয়াল সাক্ষাৎ অনুষ্ঠান হবে। উৎসবের উদ্বোধন করবেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। প্রধান অতিথি থাকবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন।

শুক্রবার সকাল ৯টায় জেএম সেন হল থেকে শুরু হবে মহাশোভাযাত্রা। উদ্বোধন করবেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। প্রধান অতিথি তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

ওইদিন দুপুরে মাতৃসম্মেলন এবং বিকালে অনুষ্ঠিত হবে ধর্মসভা। এতে ধর্মীয় গুরু ছাড়াও বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল উপস্থিত থাকবেন।

শনি ও রোববার দুইদিন মহানাম সংকীর্তন শেষে সোমবার সকালে পাঁচদিনের অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটবে।

সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের ইশতেহার অনুযায়ী সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইনসহ বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান সুকুমার চৌধুরী।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, “আগামী সংসদ নির্বাচনের দেড় বছর আগেও এসব প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে সরকারের দৃশ্যমান কোনো উদ্যোগ নেই। এতে আমরা হতাশ ও বিস্মিত।”

গত বছর রাজধানীর ধানমন্ডি এবং সম্প্রতি গুলশা ও বনানী পূজামণ্ডপের মাঠ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন বন্ধ করে দিয়েছে উল্লেখ করে পরিষদের সভাপতি বলেন, “এটি সনাতনী সমাজকে বেদনাহত করেছে।

“আমরা চাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যিনি আমাদের পরম আশ্রয়স্থল, তার নির্দেশে গুলশান, বনানী পূজামণ্ডপের মাঠ পুনরায় বরাদ্দ দিয়ে সনাতনী সমাজের প্রাণের দাবি পূরণ হোক।”

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন, সাবেক সভাপতি সুজিত কুমার বিশ্বাস, মহানগর কমিটির সভাপতি দুলাল চন্দ্র দে, পরিষদের নেতা আশীষ ভট্টচার্য, শংকর সেনগুপ্ত, মাইকেল দে, তাপস নন্দী, শ্রীপ্রকাশ দাশ অসিত।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক