চট্টগ্রামে নারী উদ্যোক্তাদের পণ্য নিয়ে চলছে মেলা

দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মোট ৭৭ জন উদ্যোক্তা এ আয়োজনে অংশ নিয়েছেন।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Sept 2022, 02:51 PM
Updated : 16 Sept 2022, 02:51 PM

নারী উদ্যোক্তাদের পণ্যসম্ভার নিয়ে দুই দিনের মেলা শুরু হলো বন্দরনগরীতে।

শুক্রবার সকালে নগরীর জিইসি কনভেনশন সেন্টারে ‘হার ই ট্রেড’ এর উদ্যোগে এ মেলা শুরু হয়।

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক সভাপতি লায়ন কামরুন মালেক বলেন, “নানা কারণে চট্টগ্রাম এখনও অনেক পিছিয়ে। ঢাকা পুরো বাংলাদেশকে ঢেকে রেখেছে। এরকম আয়োজন আমাদের মেয়েদের পথ দেখাবে।

“অভিনন্দন জানাই সে নারীদের, যারা নিজেরা কিছু করছেন। উদ্যোক্তা হয়েছেন। আপনারা এগিয়ে যান। মেয়েরা কাজ করতে দেখলে খুব ভালো লাগে। আজ থেকে ২০ বছর আগে এ সুযোগ ছিল না। আজ মেয়েরা ঘর থেকে বেরিয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছেন, যা খুব প্রশংসনীয়।“

কামরুন মালেক বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারীদের অগ্রাধিকার দেন। আপনারা আরও বড় পরিসরে কাজ করবেন সেটাই প্রত্যাশা।

“নভেম্বরে আমাদের ওমেন চেম্বারের মেলা পলোগ্রাউন্ডে হবে। বিশ্বের নানা দেশ থেকে ব্যবসায়ীরা আসেন। আপনারাও আসবেন।”

হাই ই ট্রেডের প্রেসিডেন্ট ওয়ারেছা খানম প্রীতি বলেন, “চট্টগ্রামের ৫০ জন; ঢাকা, খুলনা, মাগুরা, সুনামগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মোট ৭৭ জন উদ্যোক্তা অংশ নিয়েছেন এবারের মেলায়।

“এটি আমাদের চতুর্থ উদ্যোগ। এর আগে তিনটি মেলা হয়েছে ঢাকায়। এর আগে অনলাইনে ২৩টি মেলা হয়েছে। অনলাইনে অনেক সময় ক্রেতার আস্থা কম থাকে। ক্রেতা বিক্রেতার মেলবন্ধন তৈরি হয় অফলাইন মেলায়। ফলে ক্রেতা আস্থা পায়। নেটওয়ার্কিং প্রতিষ্ঠা পায়। শুধু বিক্রি নয়, নারী উদ্যোক্তাদের পণ্যের ব্র্যান্ডিংই মেলার উদ্দেশ্য।”

মেলায় বিভিন্ন ধরনের দেশীয় ফল ও ফসলের বীজ দিয়ে তৈরি গহনা নিয়ে অংশ নিয়েছেন ‘ঋ’ এর স্বত্বাধিকারী মাধুরী সঞ্চিতা স্মৃতি। ব্যতিক্রমী এই পণ্য ঘিরে ছিল নানা বয়সীদের ভিড়।

শুক্রবার দুপুরে নগরীর মুরাদপুর থেকে মেলায় এসেছিলেন জাহিদুর রহমান ও সালমা রহমান দম্পতি। পেশায় দুজনই ব্যাংক কর্মকর্তা।

জাহিদুর জানালেন, ছুটির দিন হওয়ায় স্ত্রীকে নিয়ে প্রদর্শনীতে এসেছেন তিনি। কিনে নিয়েছেন শো-পিস, পাহাড়ি আঙ্গিকের জামা ও টি শার্ট।

মেলায় অংশ নেওয়া মাহবুবা সুলতানার স্টলের নাম শিরোপা। তিনি দেশীয় কাঁচামালে তৈরি মণিপুরি, জামদানি শাড়ি, জামাসহ আরও নানা পণ্যের পসরা সাজিয়ে বসেছেন।

মাহবুবা বলেন, “মূলত তিনি অনলাইনে বেশি সক্রিয়। তবে বিভিন্ন প্রদর্শনীতেও অংশ নেন। দর্শনার্থীরা তার পণ্য পছন্দ করেছেন। দারুণ সাড়া মিলছে।”

অদিতি সাহা মাটির তৈরি নানা পণ্য নিয়ে প্রদর্শনীতে হাজির হয়েছেন। তার স্টলের নাম পল্লী ঘ্রাণ। কিশোরী-তরুণীদের বেশ ভিড় ছিল এই স্টলে।

শনিবার পর্যন্ত চলা এই মেলা ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক