চট্টগ্রামে ডাকাতিতে জড়িত অভিযোগে গ্রেপ্তার ৫

আকবর শাহ থানার ওসি জানান, দুই মামলায় গ্রেপ্তার পাঁচজনকে সোমবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Sept 2022, 04:09 PM
Updated : 12 Sept 2022, 04:09 PM

মহাসড়কে ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িত অভিযোগে চট্টগ্রামে পাঁচ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার ভোরে আকবর শাহ থানার লতিফপুর এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে তাদের অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাদের নিয়ে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে চারটি মোটর সাইকেলসহ বিভিন্ন ধরনের মালামাল জব্দ করে পুলিশ।

পুলিশের ভাষ্য, উদ্ধার করা মালামাল বিভিন্ন স্থানে ডাকাতি ও চুরি করে তারা সংগ্রহ করেছে।

গ্রেপ্তার পাঁচ জন হলেন- মাসুদ আলম ওরফে হিরো (২৩), মো. মানিক ওরফে সোহেল (৩২), মুহাম্মদ সাজু (৩৪), শামসুল আরেফীন ওরফে হৃদয় (২৩) ও শফিকুল ইসলাম কাজল (২৯)।

আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওয়ালী উদ্দিন আকবর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, “গ্রেফতার পাঁচ জন একটি সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য। এরা রাতের বেলায় মোটর সাইকেল ও সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে বায়েজিদ-ফৌজদারহাট লিংক রোড, টোল রোডে ঘোরাফেরা করে। সুযোগ বুঝে পথচারী, মোটরসাইকেল আরোহী কিংবা অটোরিকশা থামিয়ে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ছিনতাই করে।”

পাশাপাশি তারা মহাসড়কে ডাকাতির সঙ্গে জড়িত বলেও পুলিশের কাছে তথ্য আছে বলে জানান ওসি।

ওসি আকবর জানান, “গ্রেপ্তারের পর তাদের নিয়ে সীতাকুণ্ড উপজেলার সোনাইছড়ি ও ভাটিয়ারী এলাকার তিনটি স্থানে অভিযান চালায় পুলিশ। তাদের দেখানো স্থান থেকে চারটি মোটরসাইকেল, ল্যাপটপ, ট্যাব, ২৩টি মোবাইল ফোনসেট, ইলেকট্রনিক মালামালসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।”

গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে একটি দেশীয় এলজি, দুই রাউন্ড কার্তুজ ও একটি ছুরিও উদ্ধার করা হয়।

পুলিশের ভাষ্য, উদ্ধার করা মোটর সাইকেল ও বিভিন্ন সরঞ্জামগুলোর বিষয়ে তারা কোন তথ্য দিতে পারেনি। এসব মোটর সাইকেল ও মালামাল চুরি ও ডাকাতি করে তারা সংগ্রহ করেছে।

ওসি ওয়ালী উদ্দিন আকবর বলেন, “প্রাথমিক ভাবে আমরা তথ্য পেয়েছি টোল রোড, লিংক রোড ও মহাসড়কে মোটরসাইকেল কিংবা প্রাইভেট কার আরোহী পেলে নিজেদের মোটরসাইকেল দিয়ে তারা গতিরোধ করে। অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে এবং মারধর করে যাত্রীদের কাছ থেকে মালামাল লুট করে।”

রাতে বন্ধ থাকা বিভিন্ন দোকানের শাটার কেটে তারা চুরি করে বলেও পুলিশের কাছে তথ্য আছে বলে জানান ওসি ওয়ালী।

গ্রেপ্তার মাসুদ আলম হিরো’র বিরুদ্ধে ডাকাতি, অস্ত্র, মাদক সহ বিভিন্ন আইনে ১০টি, মানিকের বিরুদ্ধে তিনটি, সাজুর বিরুদ্ধে পাঁচটি ও হৃদয় ও শাফিকুলের বিরুদ্ধে চারটি ও দুইটি করে মামলা আছে।

আকবর শাহ থানায় তাদের বিরুদ্ধে সোমবার আরও দুইটি মামলা করা হয়েছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা ওয়ালী উদ্দিন আকবর। তিনি জানান, গ্রেপ্তার পাঁচজনের বিরুদ্ধে করা দুইটি মামলায় সোমবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তীতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড আবেদন করা হবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক