কাঁচা মরিচ বিক্রির ‘ফাঁদে ফেলে’ ছিনতাই, গ্রেপ্তার ৩

পুলিশ বলছে, আড়তের এক কর্মচারী বাজারে কাঁচা মরিচ কিনতে গেলে তাকে টার্গেট করে ছিনতাইকারীরা।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 August 2022, 11:16 AM
Updated : 16 August 2022, 11:16 AM

কাঁচা মরিচ বিক্রির কথা বলে আড়তের এক কর্মচারীকে মারধর করে টাকা ও মোবাইল ফোন ‘ছিনিয়ে’ নেওয়ার ঘটনায় একটি অটোরিকশাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার ভোরে নগরীর রেয়াজউদ্দিন বাজার এলাকা থেকে অটোরিকশাসহ এর চালক ছলিম উদ্দিন (৪০), মো. সালমান (২৮) এবং রাশেদুল ইসলামকে (২৬) গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ জানায়, অটোরিকশাটি তারা নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহার করতেন। গ্রেপ্তারের পর তাদের কাছ থেকে নগদ পাঁচ হাজার টাকা, ছুরি ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

কোতোয়ালী থানার এসআই নয়ন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “গ্রেপ্তার তিনজন ভোরবেলা রেয়াজউদ্দিন বাজারে ঘোরাঘুরি করেন। এসময় তারা আড়ত থেকে সবজি কিনতে আসা লোকজনকে টার্গেট করে টাকা ছিনিয়ে নেন।"

সোমবার ভোরেও ঠিক একইরকমভাবে এক আড়তের কর্মচারী যখন বাজারে কাঁচা মরিচ কিনতে আসেন তখন তাকে টার্গেট করে ছিনতাইকারীরা। তবে ওই আড়ত কর্মচারীর নাম জানাননি তিনি।

ওই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, “বাজারে এক দোকান থেকে পান খাওয়ার সময় ওই কর্মচারির কাছে গিয়ে সালমান আর রাশেদুল জানতে চায় সে কোথায় যাচ্ছে। উত্তরে আড়ত কর্মচারী কাঁচা মরিচ কিনবেন বলে জানান।

“এসময় সালমান ও রাশেদুল ওই আড়ত কর্মচারীকে বলেন, তাদের কাছে ৮০ কেজি মরিচ রয়েছে এবং সেগুলো কক্সবাজার নিয়ে যাওয়া কথা ছিল। কিন্তু তারা ১১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করে দিতে চান। তারা ক্রেতা খুঁজছেন।”

সেই প্রস্তাবে রাজি হয়ে ওই কর্মচারী আড়তে গিয়ে টাকা নিয়ে আসলে তাকে মাল দেওয়ার কথা বলে বাজারের কাপড় গলির ছিরিকোট ভবনের সামনে নিয়ে যায় ‘দুই ছিনতাইকারী’।

“সেখানে তাকে মারধর করে আট হাজার ৯২০ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়,”-বলেন ওসি।

তিনি জানান, ওই কর্মচারী ছিনতাইকারীদের একটি অটোরিকশা করে স্টেশন রোডের দিকে চলে যেতে দেখেন।

আড়ত কর্মচারীর করা অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ছিনতাইকারীদের ধরতে অভিযান শুরু কর। ওই এলাকার ক্লোজড সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার ভিডিও দেখে ছিনতাইকারীদের শনাক্ত করা হয়।

এসআই জানান, পরে রেয়াজউদ্দিন বাজারের ছিরিকোট বিল্ডিংয়ের কাছে পুলিশের একটি দল অবস্থান নিয়ে অটোরিকশাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক