আকসুর নজরদারিতে শ্রীলঙ্কা-পাকিস্তান টেস্ট

পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ এনেছেন শ্রীলঙ্কার এক সংসদ সদস্য।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Nov 2022, 07:32 AM
Updated : 25 Nov 2022, 07:32 AM

বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন শ্রীলঙ্কার এক সংসদ সদস্য। তার দাবি, পাকিস্তানের বিপক্ষে গল টেস্ট ছেড়ে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা!

দ্বীপ দেশটির সংসদ সদস্য নালিন বান্দারার অভিযোগের প্রেক্ষিতে পূর্ণাঙ্গ তদন্তের উদ্যোগ নিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড। তাদের আমন্ত্রণে গত জুলাইয়ে হওয়া গল টেস্টের বিষয়ে তদন্ত শুরু করবে আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী সংস্থা-আকসু। 

শ্রীলঙ্কার চরম আর্থিক দুরাবস্থা ও রাজনৈতিক অস্থিরতার মাঝে জুলাইয়ে দুই টেস্ট খেলতে দেশটিতে সফর করে পাকিস্তান। সেই সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৩৪২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে ৪ উইকেটে জেতে সফরকারীরা। ওই ম্যাচ নিয়েই প্রশ্ন বান্দারার।

চলতি মাসের শুরুর দিকে সংসদে দাঁড়িয়ে বিরোধী দলের নেতা বান্দারা অভিযোগ করেন, পুরো ক্রিকেট বোর্ড জুয়ার আখড়ায় পরিণত হয়েছে। তারা সবাই মিলে ম্যাচটি ছেড়ে দিয়েছে। 

“সবশেষ পাকিস্তান সিরিজে আমাদের দল চারশ রান করেছিল। তবু শেষ ইনিংসে গিয়ে হেরে যায়। যারা পিচ রোল করে তাদের থেকে শুরু করে প্রত্যেককে অর্থ দেওয়া হয়েছে। বোর্ড এখন জুয়ার আখড়া হয়ে গেছে।”

বান্দারার অভিযোগ করা ম্যাচে দুই ইনিংসে ২২২ ও ৩৩৭ রান করে স্বাগতিকরা। পাকিস্তান প্রথম ইনিংসে ২১৮ রানে গুটিয়ে যাওয়া লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৪২ রান। আব্দুল্লাহ শফিকের ক্যারিয়ার সেরা ১৬০ রানের সুবাদে রেকর্ড গড়ে ম্যাচটি জেতে পাকিস্তান।

ফিক্সিংয়ের অভিযোগ আসায় লঙ্কান বোর্ডের পক্ষ থেকে আইসিসির আকসু প্রধান অ্যালেক্স মার্শালকে আমন্ত্রণ জানানো হয় এই বিষয়ে তদন্ত করার জন্য। নিয়ম অনুযায়ী, তদন্ত শেষ হওয়ার আগে কোনো মন্তব্য করবে না আইসিসি।

ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের প্রতিবেদনে জানা গেছে, তদন্ত পরিচালনার জন্য আকসুর একজন কর্মকর্তাকে শ্রীলঙ্কায় পাঠাবে আইসিসি। 

সাম্প্রতিক সময়ে অনেক অভিযোগ শোনা যায় শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটে। দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়ায় ২০১৯ সালে সনাৎ জয়াসুরিয়াকে দুই বছরের নিষিদ্ধ করেছিল আইসিসি। এছাড়া ২০১১ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালে ইচ্ছে করে ছেড়ে দিয়েছে শ্রীলঙ্কা, এমন অভিযোগও শোনা যায় প্রতিনিয়ত।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক