ভারতের ভিসা অবশেষে পেলেন বাশির

এই সপ্তাহেই ভারতে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন ২০ বছর বয়সী ইংলিশ অফ স্পিনার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Jan 2024, 03:24 PM
Updated : 24 Jan 2024, 03:24 PM

ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে মাঠের ক্রিকেট ছাপিয়ে আলোচনার তুঙ্গে উঠেছিল শোয়েব বাশিরের ভিসা জটিলতার ঘটনা। প্রথম টেস্ট শুরুর আগে সময়মতো ইংল্যান্ডের এই স্পিনারের ভারতের ভিসা না পাওয়া নিয়ে সরগরম ছিল দুই অধিনায়কের ম্যাচ-পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনও। তবে ইংল্যান্ডের জন্য স্বস্তির খবর, নানা টানাপোড়েনের পর অবশেষে ভারতের ভিসা পেয়েছেন বাশির। এই সপ্তাহেই দলের সঙ্গে যোগ দেবেন তিনি। 

বাশিরের ভারতের ভিসা পাওয়ার কথা বুধবার জানিয়েছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। বোর্ডের একজন মুখপাত্র বলেছেন, “শোয়েব বাশির ভিসা পেয়েছেন এবং এই সপ্তাহান্তে ভারতে দলের সঙ্গে যোগ দিতে যাওয়ার কথা তার। সমস্যার সমাধান হওয়ায় আমরা আনন্দিত।" 

মাত্র ৬টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেই ইংল্যান্ডের এই সফরের টেস্ট দলে ডাক পান বাশির। ২০ বছর বয়সী অফ স্পিনার আবু ধাবিতে দলের প্রস্তুতি ক্যাম্পেও ছিলেন। কিন্তু গত রোববার দলের বাকি সবাই ভারতে গেলেও ভিসা না পাওয়ায় দলের সঙ্গে যেতে পারেননি তিনি। দুবাইয়ে অনেকটা সময় অপেক্ষার পরও ভিসা না পাওয়ায় তিনি ফিরে যান দেশে।

বাশিরের জন্ম ও বেড়ে ওঠা ইংল্যান্ডে। গত ১১ ডিসেম্বর দল ঘোষণার পরপরই সবার ভিসার আবেদন করা হয় একসঙ্গে। মূলত পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত হওয়ায় ভিসা পেতে দেরি হয় বাশিরের। 

তার মতো একইরকম অভিজ্ঞতা আগেও হয়েছে অনেকের। ২০১৯ সালে সাকিব মাহমুদকে ইংল্যান্ড লায়ন্সের ভারত সফর থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল। ২০২২ আইপিএলের সময় দেরিতে ভারতে আসতে হয়েছিল মঈন আলিকে। গত বছর অস্ট্রেলিয়ার ভারত সফরে ভিসা পেতে দেরি হয়েছিল ইসলামাবাদে জন্ম নেওয়া উসমান খাওয়াজার। 

বাশিরের ভিসা জটিলতা নিয়ে প্রকাশ্যেই হতাশা প্রকাশ করেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক বেন স্টোকস। প্রথম টেস্ট শুরুর আগের দিন বুধবার সংবাদ সম্মেলনে স্টোকস জানান, বাশিরকে ছাড়া ভারতে না আসার কথাও ভেবেছিলেন তারা। 

“আমি যখন আবু ধাবিতে প্রথম খবরটি পাই, তখন বলেছিলাম যে, ব্যাশ (বাশির) ভিসা না পাওয়া পর্যন্ত আমরা (ভারতে) যেতে পারি না। আমি জানি, যা হচ্ছে তা এমন কিছু করার চেয়েও অনেক বড় ব্যাপার। সম্ভবত পুরো ব্যাপারটায় আবেগ ঘিরে ছিল। আমি খুবই হতাশ যে, ব্যাশকে এমন কিছুর মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে।” 

সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটার ডেভিড লয়েড তো ডেইলি মেইলে লেখা নিজের কলামে ইংল্যান্ড দলকে ভারত থেকে ফিরে যাওয়ার কথা বেশ জোরেশোরেই বলেন।

“শোয়েব বাশিরের প্রতি যে আচরণ করা হয়েছে, তাতে ইসিবির একটি সিদ্ধান্ত নিতে হবে। ভারতকে বলুক যে, সব খেলোয়াড় না আসা পর্যন্ত তারা টেস্ট সিরিজ শুরু করবে না অথবা ইংল্যান্ড দলকে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে আসুক। এই বিষয়টি খুব গুরুত্ব সহকারে ভাবা উচিত এবং দুটি বিকল্প অবশ্যই আলোচনায় থাকা উচিত।” 

বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ সরকারও। ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফোকে সরকারের একজন মুখপাত্র বলেন, ব্রিটিশ নাগরিকদের ভিসার আবেদনের ক্ষেত্রে তাদের সবার সঙ্গে ‘সমান’ আচরণ করা উচিত। 

ইংল্যান্ড দল আশা করছিল, রোববার নাগাদ ভারতে যেতে পারবেন বাশির। তবে ভিসা পেয়ে যাওয়ায় তার আগেই যেতে পারছেন তিনি। 

হায়দরাবাদে বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে প্রথম টেস্ট। পাঁচ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট শুরু ২ ফেব্রুয়ারি থেকে।