সমাবর্তনে পলিব্যাগ, টাইয়ে বানান ভুল: ঢাবি উপাচার্য ‘দুঃখিত’

উপাচার্য বলেছেন, ঠিকাদারকে বলা হয়েছে বানান ঠিক করে বাড়তি কিছু টাই দিতে, যাতে বিদেশিদের কাছে সম্মান না যায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Nov 2022, 01:07 PM
Updated : 17 Nov 2022, 01:07 PM

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনের কস্টিউম বিতরণে নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগ ব্যবহারের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান।

পলিব্যাগের ব্যবহার ও টাইয়ে বানান ভুল নিয়ে সোশাল মিডিয়ায় তুমুল সমালোচনার মধ্যে বৃহস্পতিবার তিনি বলেছেন, যা ঘটেছে, তার কারণ ‘অসতর্কতা’।

সমাবর্তনের বিস্তারিত সূচি ও নিয়মাবলী জানাতে এদিন দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হয়েছিলেন অধ্যাপক আখতারুজ্জামান।

এর মধ্যে সমালোচনার প্রসঙ্গ এলে তিনি বলেন, “পলিথিন ব্যবহার করা একবারেই অনাকাঙ্ক্ষিত। এটা কোনোক্রমেই কাম্য নয়...। সাতটি ভেন্যুর মধ্যে দুইটাতে এটা অসতর্কতাবশত করেছে, এটার জন্য আমরা দুঃখিত।”

মহামারীর কারণে প্রায় তিন বছর বিরতির পর আগামী শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩তম সমাবর্তন বসছে; অধিভুক্ত সাত কলেজের গ্র্যাজুয়েটসহ মোট ৩০ হাজার ৩৪৮ জন গ্র্যাজুয়েট এবার অংশ নেবেন।

ইতোমধ্যে প্রশাসন নিবন্ধিতদের টুপি-গাউন, টাই ও মেয়েদের পার্টস বিতরণ শুরু করেছে। প্রতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো-নাম সংবলিত কাপড় বা পাটের বিশেষ ব্যাগে সেগুলো সরবরাহ করা হলেও এবার তা দেওয়া হয় পলিব্যাগে।

এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে উপাচার্য বলেন, “অনেকগুলো ভেন্যু থেকে গাউন ডিস্ট্রিবিউশন হয়েছে, আমাদের ক্যাম্পাসেই সাতটি ভেন্যু থেকে বিতরণ করা হয়েছে, কলেজগুলো তো আছেই।

“আমি খরব নিয়েছি, সাতটি ভেন্যুর মধ্যে দুটি ভেন্যুতে পলিব্যাগ দিয়ে গাউন বিতরণ করা হয়েছে, অন্যগুলোতে কিন্তু পরিবেশবান্ধব টিস্যু ব্যাগে বিতরণ করেছে।”

বুধবার রাতে বিষয়টি নজরে এলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে দাবি করে আখতারুজ্জামান বলেন, গাউন ফেরত দেওয়ার সময় গ্র্যাজুয়েটদের স্মারক হিসেবে ব্যাগ ও মগ দেওয়া হবে।

“কনভোকেশনের জন্য আমরা কিছু সুভেনির আইটেম তৈরি করি। ব্যাগ, মগ, টাই এগুলো সুভেনির, ওগুলো আমরা দিয়ে থাকি স্মরণীয় করে রাখার জন্য।

“দুটি বিষয় কনভোকেশনের দিন প্রয়োজন, একটি হলো ছেলেদের টাই, অপরটি হলো মেয়েদের পার্টস। তাই এগুলো গাউনের সাথে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। গাউন ফেরত দেওয়ার সময় ব্যাগ ও মগ দেওয়া হবে। সুন্দর একটি ব্যাগ স্মরণীয় করে রাখার জন্য... সেটি আমাদের প্রস্তুত আছে।”

সমাবর্তনের জন্য নিবন্ধিতদের টুপি, গাউন, টাই ও আমন্ত্রণপত্র দেওয়া হয়েছে। আমন্ত্রণপত্রে 53rd Convocation লেখা বানানটি ঠিক থাকলেও টাইয়ে লেখা হয়েছে 53th Convocation, যা সরবরাহ করেছে পিয়ারলেস কমিউনিকেশন নামের একটি কোম্পানি। ভুল বানান নিয়েও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল সমালোচনা হচ্ছে।

এ বিষয়ে উপাচার্য বলেন, “টাই যারা বানিয়েছে, তারা এই ভুলটা করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় এ ধরনের বানান ভুল করতে পারে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এ ধরনের ভুলের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স।

“ভুল মানুষের হবে, তবে সেই ভুলকে কীভাবে মিনিমাইজ করতে হয়, ভুল না থাকার জন্য সর্বাত্মক আন্তরিক প্রয়াস নেওয়া জরুরি।

উপাচার্য বলেন, “আমরা যখন কোনো বিদেশিদের এই গিফটগুলো দেব, সেটাতো আমাদের জন্য সম্মানজনক হবে না। আমরা তাদেরকে (সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান) ক্ষতিপূরণ দিতে বলেছি। বানান ঠিক করে বাড়তি আরও কিছু করে দিতে বলেছি, যাতে সেগুলো অতিথিদের প্রদান করা যায়।”

আরও পড়ুন

Also Read: ঢাবির ৫৩তম সমাবর্তনে অংশ নেবেন ৩০ হাজার গ্র্যাজুয়েট

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক