শেভরনের ‘উত্তরণ’ প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠান হয়ে গেল

যুবাদের প্রশিক্ষণের পাশাপাশি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের আধুনিকীকরণ করা হয়েছে এ প্রকল্পের মাধ্যমে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Dec 2022, 02:39 PM
Updated : 1 Dec 2022, 02:39 PM

যুবাদের দক্ষ করে গড়ে তুলতে শেভরনের অর্থায়নে অর্ধ যুগ ধরে চলা ‘উত্তরণ’ প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠান হয়ে গেল।

বৃহস্পতিবার ঢাকার শেরাটন হোটেলে এ আয়োজনে প্রকল্পের সাফল্য ও কার্যক্রম তুলে ধরা হয় বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

প্রকল্পটি বাস্তবায়নকারী সুইসকন্ট্যাক্ট’কে ধন্যবাদ জানিয়ে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, “সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাগুলোর তরফ থেকে সার্থকভাবে সামাজিক উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সিটি কর্পোরেশন, খুলনা শিপইয়ার্ড টিটিসি’র মত সংস্থাসমূহের সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রশংসার দাবিদার।”

অনুষ্ঠানে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান (সচিব) নাসরীন আফরোজ বলেন, “উত্তরণ- এনএসডিএ’র সাথে একটি ঘনিষ্ঠ কার্যকর সম্পর্ক বজায় রেখেছে। এনএসডিএ’র দিকনির্দেশনার মাধ্যমে এটি ট্রেড প্যাকেজিং-এ দক্ষ জনবলের চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্যাকেজিং ও ফিনিশিংয়ের কাজে দক্ষতার একটি নতুন মাত্রা তৈরি।”

শেভরন বাংলাদেশ’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এরিক এম ওয়াকার বলেন, “উত্তরণ বাংলাদেশের দক্ষ জনবলের ঘাটতি পূরণে মানসম্মত কারিগরি শিক্ষা কর্মসূচি পরিচালনা করে, যা নারীসহ অসংখ্য যুবদের সামাজিক উন্নয়নে অবদান রেখেছে।”

সুইসকন্ট্যাক্ট বাংলাদেশ’র কান্ট্রি ডিরেক্টর মুজিবুল হাসান বলেন, “উত্তরণ ২০১৬ সালে যাত্রা শুরু করে এই ৬ বছরে আমরা অনেকটা পথ পাড়ি দিয়েছি। আমরা আমাদের প্রত্যাশার চেয়ে আরও বেশি কিছু পেয়েছি।”

২০১৬ সালে শুরু হওয়া ‘উত্তরণ’ প্রকল্পের প্রথম পর্যায় শেষ হয় ২০১৯ সালে, যেখানে সিলেট অঞ্চলের ১৪০০ যুবাকে কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। দ্বিতীয় পর্যায়ে যুবাদের কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রদান, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সঙ্গে ভোলানন্দ উত্তরণ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের আধুনিকীকরণ এবং খুলনা শিপইয়ার্ডের সাথে অ্যাডভান্সড ওয়েল্ডিং প্রশিক্ষণ চালু করা হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক