তেল চিনির দাম কমলো

বেঁধে দেওয়া নতুন দর অনুযায়ী, খুচরায় চিনির দাম কেজিতে ৬ টাকা এবং পাম তেলের দাম লিটারে ১২ টাকার মত কমেছে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Sept 2022, 01:01 PM
Updated : 22 Sept 2022, 01:01 PM

বেশ কিছু দিন থেকে বাড়তে থাকা চিনির দাম কমিয়ে তিন স্তরে নতুন মূল্য নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। একইভাবে কমানো হয়েছে পাম সুপার তেলের দরও।

এতে এ দুটি পণ্যের দাম কিছুটা কমে এসেছে। বেঁধে দেওয়া নতুন দর অনুযায়ী, খুচরায় চিনির দাম কেজিতে ৬ টাকা এবং পাম তেলের দাম লিটারে ১২ টাকার মত কমেছে।

বৃহস্পতিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য শাখা দাম নির্ধারণ করে এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে; যা আগামী রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) থেকে কার্যকর হবে।

নতুন মূল্য তালিকা অনুযায়ী, পাম সুপার তেল প্রতি লিটার খুচরায় সর্বোচ্চ ১৩৩ টাকায় বিক্রি হবে; যা এতদিন ১৪৫ টাকায় নির্ধারিত ছিল। মিল গেইটে পাম তেল প্রতি লিটার ১২৮ টাকা এবং পরিবেশক পর্যায়ে ১৩০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

একইভাবে পরিশোধিত খোলা চিনি প্রতিকেজি ৮৪ টাকা এবং প্যাকেট চিনি প্রতিকেজি সর্বোচ্চ ৮৯ টাকায় নির্ধারণ করা হয়েছে। বাজারে বর্তমানে খোলা চিনি ৯০ টাকা এবং প্যাকেট চিনি ৯৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

মিল গেইটে খোলা চিনি প্রতিকেজি ৭৯ টাকা এবং পরিবেশক পর্যায়ে ৮১ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। একইভাবে প্যাকেটজাত চিনি মিল গেইটে ৮২ টাকা এবং পরিবেশক পর্যায়ে ৮৪ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী সরকার ‘দ্যা কন্ট্রোল অব অ্যাসেনসিয়াল কমোডিটিস অ্যাক্ট-১৯৫৬’ এর ক্ষমতাবলে মিল গেইট, পরিবেশক ও সর্বোচ্চ পর্যায়ে তেল চিনির দাম নির্ধারণ করলো।

এর আগে বিভিন্ন সময় তেল ও চিনির দাম নির্ধারণ করে দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। সবশেষ বাজার বিশ্লেষণ করে চিনি ও পাম তেলের দাম কমিয়ে ঠিক করে দেওয়া হল।

চাল, লবণসহ অত্যাবশ্যকীয় অন্তত ৯টি পণ্যের দাম বেঁধে দেওয়া হবে বলে চলতি মাসের শুরুতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে আইনি জটিলতার কারণে অনেক পণ্যের দাম বেঁধে দেওয়া কঠিন বলে সম্প্রতি বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানিয়েছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক