‘কব্জি কেটে’ নিয়ে নিজেদের জানান দিতেন তারা

এক ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর চক্রটিকে গ্রেপ্তার করতে মাঠে নামেন র‌্যাব সদস্যরা।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Feb 2024, 11:13 AM
Updated : 10 Feb 2024, 11:13 AM

প্রতিপক্ষের হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন করে তা সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে নিজেদেরকে মোহাম্মদপুর এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী হিসাবে প্রচার করত একটি চক্র।

সেই চক্রের রাফিদুল ইসলাম রানা ওরফে রাফাত (২৩) ও তার সহযোগী তুষার হাওলাদারসহ (২৩) সাতজনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব বলছে, তারা মোহাম্মদপুর, আদাবর ও বেড়িবাধ এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করতে এ ধরনের নারকীয় ঘটনা ঘটিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিল।

শনিবার কারওয়ান বাজারে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, গত ২৬ অগাস্ট কয়েকজন সন্ত্রাসী ঢাকার মোহাম্মদপুরে আরমান নামে এক যুবকের হাতের কব্জি বিচ্ছিন্নের পর সেই ঘটনা সোশাল মিডিয়ায় প্রকাশ করে। তা ভাইরাল হলে বিষয়টি র‌্যাবের নজরে আসে। এরপরই চক্রটিকে গ্রেপ্তার করতে র‌্যাব সদস্যরা মাঠে নামে।

মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে গত শুক্রবার রাতে র‌্যাব-২ এর সদস্যরা আহমেদ খান (২২), হাসান ওরফে গুটি হাসান (২৪), হানিফ হোসেন জয় (২৪), রমজান (২৩) ও মো. রাজুকে (১৯) গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে দেশীয় ধারালো অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়।

তাদের দেওয়া তথ্যে আরমানের হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন করে ভিডিও ভাইরালকারী রাফাত এবং তার সহযোগী তুষারকে বাগেরহাট থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান হয়।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)