দুই কর্মকর্তা লাপাত্তা, ‘তথ্য পাচারের’ শঙ্কা বিমানের

দুই কর্মকর্তার একজন কানাডায় ‘পালিয়ে গেছেন’ এবং অন্যজন তিন মাস আগে চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন, যদিও তা গৃহীত হয়নি।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Jan 2024, 04:55 AM
Updated : 17 Jan 2024, 04:55 AM

লাপাত্তা দুই কর্মকর্তার মাধ্যমে তথ্য পাচারের আশঙ্কা প্রকাশ করে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ।

রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এ বিমান পরিবহন সংস্থা বলছে, দুই কর্মকর্তার একজন কানাডায় ‘পালিয়ে’ গেছেন এবং আন্যজন তিন মাস আগে চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন, যদিও তা গৃহীত হয়নি।

ওই দুই কর্মকর্তা হলেন-বিমানের সহকারী ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) আনোয়ার হোসেন ও বাণিজ্যিক তত্ত্বাবধায়ক সোহান আহমেদ।

সোমবার বিমানবন্দর থানায় করা জিডিতে ওই দুই কর্মকর্তার মাধ্যমে বিমানের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচারের আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে।

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও শফিউল আজিম বলেন, “তাদের কাছে বিমানের গুরুত্বপূর্ণ চুক্তিপত্র, সফটওয়ার ও তথ্য আছে, যা পাচার হলে বিমানের ক্ষতি হবে। এ কারণে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।“

থানায় জিডি করেছেন বিমানের কর্মকর্তা মো. মাছুদুল হাছান। সেখানে বলা হয়, “কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া গত ৭ ডিসেম্বর বিমানের বিজি-৩০৫ ফ্লাইটে আনোয়ার হোসেন কানাডা যান।

“আর সোহান আহমেদ চাকরিতে ইস্তফা দিয়ে ২৪ অক্টোবর থেকে কর্মস্থলে আসছেন না। কিন্তু তার ইস্তফা পত্রটিও গৃহীত হয়নি। তারা বিমানের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচার করতে পারেন বলে শঙ্কা রয়েছে।“

ওই জিডির বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিমানবন্দর থানার ওসি ইয়াসির আরাফাত খান।