চাইল্ড পার্লামেন্টে শিশুদের প্রশ্নের জবাব দিলেন ২ প্রতিমন্ত্রী

৩০ জেলার ৫২ জন শিশু এতে অংশ নেয়।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Sept 2022, 04:21 PM
Updated : 21 Sept 2022, 04:21 PM

সরকারের দুই প্রতিমন্ত্রীকে কাছে পেয়ে শিশুরা শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও মত প্রকাশসহ বিভিন্ন বিষয়ে জানতে চান।

বুধবার ঢাকায় চাইল্ড পার্লামেন্টের এক অনুষ্ঠানে শিশুদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শামসুল আলম ও সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের একনেক সম্মেলন কক্ষে ২১তম চাইল্ড পার্লামেন্টের এ অনুষ্ঠানে শিশুরা বিনোদন ও সুরক্ষা, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের জন্য পর্যাপ্ত শিক্ষা ও স্বাস্থ্য উপকরণের ব্যবস্থায় সরকারের পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে চায়।

তারা শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে সরকারের উদ্যোগ, অনলাইনে যৌন হয়রানি বন্ধে পরিকল্পনা, শিশু ও তরুণদের আত্মহত্যা প্রবণতা নিয়ে ভাবনা ও উদ্যোগ নিয়ে প্রতিমন্ত্রীদের কাছে প্রশ্ন করে তারা।

এছাড়া বেদে পল্লীর শিশু, যৌন কর্মে নিয়োজিত মায়েদের শিশু, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও চরাঞ্চলের শিশুদের বিষয়ে সরকারের বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া প্রসঙ্গেও প্রশ্ন করে শিশুরা।

ন্যাশনাল চিলড্রেনস টাস্ক ফোর্স (এনসিটিএফ), সেভ দ্য চিলড্রেন ইন বাংলাদেশ ও প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের আয়োজনে দেশের ৩০টি জেলার ৫২ জন শিশু এতে অংশ নেয়।

বিভিন্ন বিষয়ে জানতে চাওয়ার পাশাপাশি তারা কিছু সুপারিশও উপস্থাপন করে।

সংসদে শিশুদের অংশগ্রহণ ও মতামতের ভিত্তিতে বাজেট প্রণয়ন এবং তা বাস্তবায়নের জন্য সরকারের পরিকল্পনার বিষয়েও আলোচনা হয় অনুষ্ঠানে।

বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শামসুল আলম বলেন, সকল শিশু ও তাদের পরিবারকে উদ্বুদ্ধ করতে উপবৃত্তি বৃদ্ধি, বিনামূল্যে বই বিতরণ, স্কুলের নতুন ভবন তৈরিসহ বিভিন্ন কার্যক্রমের সঙ্গে সঙ্গে মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ ও পরিকল্পনা আছে।

শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতির জন্য তাদের ‘পরিবারের অস্থিতিশীলতা দায়ী’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, “শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্যের যত্ন এখন জরুরি বিষয়, তবে পরিবারে অস্থিতিশীলতার কারণে এর প্রভাব বেশি পড়ছে।

“এছাড়াও স্কুলগুলোতে পরিক্ষাভীতি, লেখাপড়ার কম্পিটিশন (প্রতিযোগিতা), শিক্ষকদের চাপ শিশুদের অনেক প্রভাবিত করে।”

শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য স্কুলগুলোকে ‘আনন্দকেন্দ্র’ হিসেবে গড়ে তোলার পরামর্শ দেন তিনি।

সরকার বাজেটে শিশু সুরক্ষা কার্যক্রম শক্তিশালী করার উদ্যোগও নিয়েছে বলে জানান তিনি।

সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু বলেন, “সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে আমাদের মন্ত্রণালয়ে বিভিন্ন প্রকল্প রয়েছে। তবে এই অধিবেশন আমাদের আরও ভাবতে সাহায্য করবে। শিশু ও তরুণদের সুস্থ্য-স্বাভাবিক জীবন নিশ্চিতকরণে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ আগেও নিয়েছে এবং নিচ্ছে।

প্রতিবছর এনসিটিএফ চাইল্ড পার্লামেন্ট অধিবেশনের মাধ্যমে তাদের মতামত প্রদানের কাজটি করে থাকে।

এবারের অধিবেশনে তিন হাজার শিশুর উপরে শিশুদের করা জরিপ ও এক হাজার ৩১৭ জন সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের সঙ্গে আলোচনা করে শিশুরা তাদের প্রশ্ন ও আলোচ্য বিষয় নির্ধারণ করে।

অধিবেশনে চাইল্ড রাইটস গভর্নেন্স অ্যান্ড চাইল্ড প্রোটেকশনের পরিচালক আবদুল্লা আল মামুন এবং সেভ দ্য চিলড্রেন ও প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালসহ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক