ট্রাম্পকে নয় বাইডেনকে পছন্দ পুতিনের

তবে নভেম্বরের নির্বাচনে জিতে যেই যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হন রাশিয়া তার সঙ্গেই কাজ করবে বলে জানিয়েছেন পুতিন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Feb 2024, 07:41 AM
Updated : 15 Feb 2024, 07:41 AM

জো বাইডেন অনেক বেশি অভিজ্ঞতা সম্পন্ন মানুষ, যাকে বুঝতে পারা যায়। তাই যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডনাল্ড ট্রাম্পকে নয় বরং বাইডেনকেই পছন্দ রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের।

বুধবার টেলিভিশনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এভাবেই নিজের পছন্দের কথা জানিয়ে অনেককে অবাক করেছেন পুতিন।

অথচ, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে পুতিন ট্রাম্পের প্রশংসা করে তাকে ‘অসাধারণ এবং খুবই বিচক্ষণ’ বলে বর্ণনা করেছিলেন।

এমনকি ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটনকে হারিয়ে ট্রাম্পের জয়ের পেছনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ ছিল বলেও অভিযোগ রয়েছে। যদিও ট্রাম্প এবং পুতিন উভয়ই ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

অন্য দিকে, বাইডেন বহু বছর ধরে পুতিনের সমালোচনা করে আসছেন। এমনকি ইউক্রেইনে রুশ আক্রমণ শুরু হওয়ার পর তিনি পুতিনকে ‘হত্যাকারী’ বলেও সম্বোধন করেন।

বুধবারের সাক্ষাৎকারে পুতিন বলেন, “বাইডেনের নেতৃত্ব রাশিয়ার জন্য ভালো হবে। কারণ, তিনি অনেক অভিজ্ঞ একজন মানুষ, তাকে বুঝতে পারা যায় এবং তিনি একজন প্রথাগত রাজনীতিবিদ।”

এ বছর নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বাইডেনের বর্তমান বয়স ৮১ বছর। ভোটে জিতলে আগামী আরো পাঁচ বছর তিনি যুক্তরাষ্ট্রকে নেতৃত্ব দিতে কতটা সক্ষম থাকবেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। গত নির্বাচনে জিতেই তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট হওয়ার রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন।

বাইডেনের মানসিক সক্ষমতা নিয়েও এবার প্রশ্ন উঠছে। এ প্রসঙ্গে পুতিন বলেন, প্রেসিডেন্ট বাইডেনের বয়স এবং মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে প্রশ্নের কোনো অবকাশ নেই।

“২০২১ সালে তার সঙ্গে আমার শেষ দেখা হয়েছে এবং আমি তার মধ্যে বয়সজনিত কোনো অসুবিধা দেখতে পাইনি। যদিও তখনও মানুষ তার দেশ পরিচালনার সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল। কিন্তু আমার চোখে তেমন কিছু পড়েনি।

“হ্যাঁ, এটা ঠিক যে তিনি কাগজপত্রের দিকে তাকিয়ে থাকেন। কিন্তু সত্যি বলতে গেলে আমিও ঠিক একই কাজ করি। তাই এখানে অস্বাভাবিক কিছুই নেই।”

নভেম্বরের নির্বাচনে জিতে যেই যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হন রাশিয়া তার সঙ্গেই কাজ করবে বলে স্পষ্ট করেছেন পুতিন।

তবে সাক্ষাৎকারে পুতিন যে বাইডেনের প্রশংসাই করেছেন তা কিন্তু নয়। বরং ইউক্রেইন যুদ্ধ বিষয়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেন যেভাবে নিন্দা জানিয়েছেন সেটিকে ‘খুবই ক্ষতিকর এবং ভ্রান্ত’ বলে বর্ণনা করেছেন পুতিন।

পুতিনের এভাবে বাইডেনের প্রশংসা করা এবং খোলাখুলি ট্রাম্পের চাইতে বাইডেনকে তার বেশি পছন্দ করার কথা জানানো নিয়ে অনেকের মনে সংশয় রয়েছে। কেউ কেউ ধারণা করছেন, যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে দিয়ে আবারও কথার খেলা শুরু করেছেন পুতিন।

এদিকে, সম্প্রতি ট্রাম্প নেটো সদস্যভুক্ত যেসব দেশ যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন এই সামরিক জোটের পরিচালনায় নিজেদের ভাগের অর্থ প্রদানে ব্যর্থ হচ্ছে সেসব দেশে রাশিয়াকে আক্রমণ করতে ‘উৎসাহ’ দেবেন বলে মন্তব্য করে দারুণ সমালোচিত হচ্ছেন।