পাকিস্তানের পাঞ্জাবে ইমরানেরই জয়, নাটকীয়ভাবে নতুন মুখ্যমন্ত্রী পারভেজ

পাঞ্জাব প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিয়েছেন পিটিআই-সমর্থিত প্রার্থী চৌধুরি পারভেজ এলাহি। তবে পাঞ্জাবে নয়, বরং ইসলামাবাদে গিয়ে শপথবাক্য পাঠ করতে হয়েছে তাকে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2022, 03:28 PM
Updated : 27 July 2022, 03:28 PM

পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ক’দিন আগেই পাঞ্জাবের উপ-নির্বাচনে নিজ দল পিটিআই-এর বিস্ময়কর জয় পেয়েছেন। এবার রাজ্যের নতুন মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচন নিয়ে এক শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি পেরিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে আবার জয় পেলেন তিনিই। মুখ্যমন্ত্রী হলেন পিটিআই-সমর্থিত প্রার্থী চৌধুরি পারভেজ এলাহি।

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে গত ২২ জুলাই মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচনী দৌড়ে পাকিস্তান মুসলিম লিগ নওয়াজের (পিএমএল-এন) হামজা শাহবাজ ১৭৯ ভোট পেয়ে বিতর্কিতভাবে মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসেন। অথচ ১৮৬ ভোট পেয়েও পাত্তা পাচ্ছিলেন না পিটিআই মনোনীত প্রার্থী পিএমএল-কিউ নেতা পারভেজ এলাহি।

মূলত প্রাদেশিক আইন সভার ডেপুটি স্পিকারের বিতর্কিত রায়ের কারণে পাঞ্জাবের ক্ষমতায় আসীন হতে পারছিলেন না এলাহি। পরে বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টে গড়ায়।

এ নিয়ে অনেক উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার পর মঙ্গলবার দিনশেষে সুপ্রিম কোর্ট বহু প্রতীক্ষিত রায়ে ডেপুটি স্পিকারের রুলিংকে ‘অসাংবিধানিক’ আখ্যা দিয়ে চৌধুরি পারভেজ এলাহিকেই পাঞ্জাবের নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে ঘোষণা করেছে।

এরপর বুধবার সকালে শপথ নিয়েছেন তিনি। তবে সেখানেও ছিল নাটকীয়তা। পাঞ্জাবে নয়, বরং দেশের রাজধানী ইসলামাবাদে উড়ে গিয়ে ‘আইওয়ান-ই-সদর’ প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে শপথবাক্য পাঠ করতে হয়েছে পারভেজ এলাহিকে।

সুপ্রিম কোর্টের তিন সদস্যের বেঞ্চ প্রাথমিকভাবে এলাহিকে শপথবাক্য পাঠ করানোর ভার পাঞ্জাবের গভর্নর বালিগ-উর রেহমানকে দিয়েছিল। কিন্তু বালিগ এ দায়িত্ব পালনে অস্বীকৃতি জানালে এলাহিকে লাহোর থেকে ইসলামাবাদে ছুটে যেতে হয়।

পারভেজ এলাহিকে ইসলামাবাদে নিয়ে যেতে একটি বিশেষ বিমান পাঠিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। পরে তিনিই এলাহিকে শপথবাক্য পাঠ করান বলে জানিয়েছে পাকিস্তানের ‘দ্য ডন’ পত্রিকা।

Also Read: পাঞ্জাবে পিটিআইয়ের জয়, আগাম নির্বাচনের ডাক ইমরানের

এ ব্যাপারে প্রয়োজনে প্রেসিডেন্টকে হস্তক্ষেপ করতে আগেই ‘পরামর্শ’ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির বেঞ্চ। আদালতের রায় হামজা শাহবাজের বাবা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের জন্য বড় ধাক্কা হিসাবেই দেখছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

গত ১৮ জুলাই পাঞ্জাব প্রদেশের উপ-নির্বাচনে ইমরান খানের দল পিটিআই বিস্ময়কর জয়লাভের পর তাদের মনোনীত প্রার্থী ‘পাকিস্তান মুসলিম লিগ কায়েদ-ই-আজম’ (পিএমএল-কিউ) নেতা পারভেজ এলাহিই মুখ্যমন্ত্রী হতে চলেছেন বলে সবার ধারণা ছিল।

কিন্তু ডেপুটি স্পিকার দোস্ত মাজারি পিএমএল-কিউ এর ১০ সদস্যের ভোট ‘অবৈধ’ বলে নাকচ করে দেন। এরপর তিনি হামজা শাহবাজকে ৩ ভোটে জয়ী ঘোষণা করেন। এতে পরিস্থিতি ঘোলাটে হয়ে ওঠে।

ডেপুটি স্পিকার মাজারির সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যায় ইমরানের দল। শেষ পর্যন্ত মঙ্গলবারের রায়ে সর্বোচ্চ আদালত জানায়, মাজারির সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হবেন পারভেজ এলাহি।

পিটিআই এ রায়কে আইনের জয় বলে অভিহিত করেছে। তবে পাকিস্তানের শাসক দলের জোট পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায় প্রত্যাখ্যান করেছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক