চার মাঙ্কিপক্স রোগী শনাক্তের পর ভারতে সতর্কতা

ভারতে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্তের সংখ্যা চার হতেই সতর্কতা অবলম্বন করেছে সরকার।

নিউজ ডেস্করয়টার্স
Published : 25 July 2022, 12:01 AM
Updated : 25 July 2022, 12:01 AM

ভারতে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্তের সংখ্যা চার হতেই সতর্কতা অবলম্বন করেছে সরকার।

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রোববার রাজধানীতে যে মাঙ্কিপক্স রোগী শনাক্ত হয়েছে তিনি কার কার সংস্পর্শে এসেছেন তা খুঁজে বের করতে দিল্লি সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ভারতের বিভিন্ন রাজ্যকে মাঙ্কিপক্স ভাইরাস ‘নিবিড় পর্যবেক্ষণে’ রাখতে বলা হয়েছে। রোগ মোকাবেলায় বেশ কিছু নির্দেশিকাও সরকার জারি করেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

অন্যান্য দেশ থেকে ভারতে পদার্পন করা যাত্রীদের পরীক্ষা করার জন্য দেশের বিমানবন্দরগুলোতে গত শুক্রবারেই সতর্কতা জারি করেছে ভারত সরকার।

কেন্দ্রীয় সরকার বলছে, অন্য দেশের যাত্রী আছেন এমন বিমানসহ সব বিমানবন্দরকে অবিলম্বে নজরদারি বাড়ানোসহ আগত যাত্রীদের পরীক্ষা করা উচিত। বিশেষ করে যেসব দেশে মাঙ্কিপক্সের বিস্তার ঘটেছে, সেইসব দেশ থেকে আসা যাত্রীদের বিশেষভাবে পরীক্ষা করা উচিত।

ভারতের কেরালা রাজ্যে এ মাসে তিন মাঙ্কিপক্স রোগীর সন্ধান মেলার পর রোববার রাজধানী দিল্লিতে প্রথম একজন মাঙ্কিপক্স রোগী পাওয়া যায়। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মাঙ্কপক্স রোগীর সংখ্যা দাঁড়ায় চারজনে।

কেরালায় পাওয়া তিন রোগীর ক্ষেত্রেই বিদেশ থেকে ভারতে আসার পর মাঙ্কপক্স ধরা পড়েছে। কেবল দিল্লিতে ধরা পড়া রোগীর বিদেশ ভ্রমণের কোনও ইতিহাস পাওয়া যায়নি। তবে কয়েকদিন আগে হিমাচল প্রদেশের মানালিতে একটি পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন তিনি।

সেই পার্টিতে গিয়ে কারও কাছ থেকে ওই ব্যক্তি মাঙ্কিপক্স সংক্রমিত হয়েছেন কিনা তা নজরদারি টীম খতিয়ে দেখছে বলে জানিয়েছে ‘দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’ পত্রিকা।

রোববার দিল্লিতে মাঙ্কিপক্স রোগী ধরা পড়ার পরই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় মাঙ্কিপক্স নিয়ে স্বাস্থ্য পরিষেবা অধিদপ্তরের (ডিজিএইচএস) একটি উচ্চ-পর্যায়ের বৈঠক করার কথা জানায়।

মন্ত্রণালয় বলেছে, "আরও জনস্বাস্থ্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। এর মধ্যে আছে- সংক্রমণের উত্স সনাক্তকরণ, আক্রান্ত ব্যক্তি কার কার সংস্পর্শে এসেছেন তার খুঁজে বের করা। এর জন্য কিছু বিশেষ সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রয়োজনেই পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে উচ্চ-পর্যায়ের এ বৈঠকের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।”

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) গত শনিবারই সর্বোচ্চ সতর্ক পদক্ষেপ হিসাবে মাঙ্কিপক্সকে বিশ্ব জনস্বাস্থ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। বিশ্বজুড়ে ৭৫টির বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে মাঙ্কি পক্স। আক্রান্তের সংখ্যা ১৬,০০০ ছাড়িয়েছে। ইতোমধ্যে ৫ জন মারাও গেছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক